bbl surgery
কৃত্রিম উপায়ে নিতম্বের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে গিয়ে বছরে গড়ে ৩০০০ জন নারীর মৃত্যু হচ্ছে সারা বিশ্বে! ছবি: স্ট্যান্ডার্ড কো ইউকে

ওয়েবডেস্ক: ব্রিটেনে এই নিয়ে দুর্ঘটনা ঘটল দুই বার! প্রথমে চলতি বছরের শুরুর দিকে এক বছর বিশের ব্রিট লেডি নিতম্ব উন্নত করানোর জন্য ব্রাজিলিয়ান বাট লিফ্ট সার্জারি করিয়েছিলেন। কিন্তু কিছু দিনের মধ্যেই সার্জারির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় তাঁর মৃত্যু হয়। তার পর, সেই ব্রিটেনেই চলতি বছরের অগস্ট মাসে আবার এক বছর ঊনত্রিশের নারীর মৃত্যু হয়েছে একই কারণে বলে খবর!

চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এগুলোকে বিক্ষিপ্ত ঘটনা ভাবা মোটেও সমীচীন হবে না। কেন না, সমীক্ষা বলছে, কৃত্রিম উপায়ে এই ভাবে নিতম্বের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে গিয়ে বছরে গড়ে ৩০০০ জন করে নারীর মৃত্যু হচ্ছে সারা বিশ্বে! কিন্তু ঠিক কী ভাবে ব্রাজিলিয়ান বাট লিফ্ট সার্জারি মৃত্যুমুখে ঠেলে দিচ্ছে নারীদের?

আরও পড়ুন: শুশ্রূষার নামে হনুমানের শরীরে ট্যাটু তৈরি থেকে মৃত্যু- ধরা পড়ল ভয়ানক ভিডিও ফুটেজ

বিষয়টা রীতি মতো দুশ্চিন্তার! বছরে এই সার্জারিতে মৃত নারীর সংখ্যা বিশ্বে ক্রমশ বেড়েই চলেছে। “আসলে এই পদ্ধতিতে শরীরের কোনো এক অংশ থেকে মেদ নিয়ে তা ইনজেক্ট করে দেওয়া হয় নিতম্বের শিরায়। এ বার অতিরিক্ত ওই মেদের ভার অনেক সময়েই শিরা বহন করতে পারে না, তা রক্তে ভাসতে ভাসতে সরাসরি গিয়ে ধাক্কা মারে মস্তিষ্কে বা হৃদযন্ত্রে, শিরা অবরুদ্ধ করে মৃত্যু ডেকে আনে”, জানিয়েছেন ব্রিটিশ অ্যাসোসিয়েশন অব এসথেটিকস প্লাস্টিক সার্জন-এর অন্যতম সদস্য ডা. জেরার্ড ল্যাম্ব!

এ তো গেল বিশেষজ্ঞের কথা! কিন্তু মৃত্যু না হলেও ব্রাজিলিয়ান বাট লিফ্ট সার্জারির কারণে কী ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন নারীরা?

“আমায় ওই জায়গাটা সব সময়েই ব্যান্ডেজ করে রাখতে হতো। কেন না, মেদ গলে গলে পড়ত, রীতি মতো দুর্গন্ধও বেরোত! আমি হাঁটতেও পারতাম না ঠিক ভাবে। আমার স্বাভাবিক জীবন বলে কিছুই ছিল না। এখনও নেই। শুধু গুচ্ছের টাকা খরচ হয়ে চলেছে আবার আগের জায়গাীয় ফেরার জন্য”, বিবিসি-র ভিক্টোরিয়া ডার্বিশায়ার অনুষ্ঠানে এসে এ কথা কবুল করেছেন নাম প্রকীাশে অনিচ্ছুক এক ওয়েলস-বাসিনী!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন