প্রতি বছরই কোনো না কোনো সেলিব্রেটির যৌন কেলেঙ্কারি সামনে আসে। তাঁদের কাউকে যেতে হয় যৌন পুনর্বাসন কেন্দ্রে, কাউকে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় আদালতেও। বাদ যায়নি ২০১৬-ও। রইল এমনই কয়েক জন তারকার যৌন কেলেঙ্কারির কথা।

ওজি অসবুর্নেozzy

বছরের সেক্স স্ক্যান্ডালের তালিকায় উঠে এলো ‘ফায়ার উইন্ড’ ব্যান্ডের হোতা গিটারিস্ট ওজি অসবুর্নে-র নাম। হেয়ার ড্রেসার মিছেন পুঘের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কের ধাক্কায় ওজি আর স্যারনের ৩৩ বছরের দাম্পত্যে ফাটল ধরল। ওজির ড্রাগের নেশা, মাদকাসক্তি আর যৌন আসক্তির কারণে এর আগেও তাঁদের সম্পর্কে তিক্ততা আসে।

মার্ক সাল্লিং mark
কেলেঙ্কারির তালিকায় রয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা মার্ক সাল্লিং। শিশু পর্নগ্রাফি ও ধর্ষণের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে তাঁর ব্যক্তিগত ল্যাপটপ। তাতে অভিযোগের সপক্ষে যথেষ্ট প্রমাণও পাওয়া গেছে। তাছাড়া ২২ বছরের এক যুবতী তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ জানান। তাঁর দাবি অভিনেতা মার্ক সাল্লিং তাঁকে বছর চারেক আগে ধর্ষণ করেছিলেন। যদিও লস অ্যাঞ্জেলসের ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি মামলা খারিজ করে দিয়েছেন।

অ্যান্থনি ওয়েইনার anthoni
ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতা অ্যান্থনি ওয়েইনারের যৌন কেলেঙ্কারি সামনে এলো। ২০১১ সাল থেকে তিনি অন্তত ছ’জন মহিলাকে ছবি ও মেসেজ পাঠিয়েছেন বলে স্বীকার করেন অ্যান্থনি। তাছাড়া ১৫ বছরের একটি মেয়ের সঙ্গে তাঁর যৌন সম্পর্কের ঘটনাও সামনে আসে এ বছর। তাঁকে যৌন পুনর্বাসনে পাঠানো হয়।

মেঘনা মর্কেলmeghna
অভিনেত্রী মেঘনার একটি ‘টপ লেস’ ছবি গসিপ সাইটে ছড়িয়ে পড়ে। নভেম্বরে ছবিটি ভাইরাল হওয়ার পর মেঘনা মর্কেলের প্রেমিক প্রিন্স হ্যারি বিষয়টি ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন।

টবি উইলসwill ‘দ্য উইলস কলন’ নামক সঙ্গীত গোষ্ঠীর প্রধান টবি উইলসের বিরুদ্ধে ১২ বছর আগে এক শিশুকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে। এ ছাড়াও ২০০২ সালেও তিনি এক শিশুকে ধর্ষণ করেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here