earthquake in venezuela
কম্পনের পরে বাড়িতে ফাটল। ত্রিনিদাদে। ছবি: টুইটার

ওয়েবডেস্ক: গত কয়েক দিন ধরেই জোরালো ভূমিকম্পে দুলে উঠছিল আন্দামান-ইন্দোনেশিয়া অঞ্চল, ফলে বড়োসড়ো কোনো ভূমিকম্পের ইঙ্গিতবাহক হিসেবে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক গ্রাস করছিল। এ বার ভূমিকম্প হল সুদূর দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ভেনেজুয়েলায়। রিখটার স্কেলে ৭.৩ মাত্রার এই কম্পন দুলিয়ে দিল ব্রায়ান লারার দেশ ত্রিনিদাদ ও তোবাগোকেও।

তবে মাটির অনেক নীচে (১২৫ কিমি) এই কম্পনের উৎপত্তি হয়েছিল বলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ অনেকটাই কম। দেশের তেল শোধনাগারগুলির কোনো ক্ষতি হয়নি বলে জানিয়ে দিয়েছে প্রশাসন।

এই মুহূর্তে ভেনেজুয়েলার আর্থিক অবস্থা খুব খারাপ। প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র অমিল, ওষুধপত্র পাওয়া যায় না, হাসপাতালগুলি ঠিকঠাক কাজ করে না। এর মধ্যে কোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয় হলে সেটা সহ্য করার ক্ষমতা সে দেশের আছে কি না সেটা একটা বড়ো প্রশ্ন।

আরও পড়ুন অপরিসীম ক্ষয়ক্ষতি, ছন্দে ফিরতে কেরলের লেগে যেতে পারে বহু বছর

এই ভূমিকম্প ভেনেজুয়েলার ইতিহাসে অন্যতম তীব্র ভূমিকম্প, এমনই জানানো হয়েছে বিশেষজ্ঞদের তরফ থেকে। ফলে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্কের ছাপ ছিল স্পষ্ট।

ভেনেজুয়েলার এই কম্পন প্রতিবেশী কোলোম্বিয়ার রাজধানী কারাকাসকে দুলিয়েছে। পাশাপাশি ক্রিকেটভক্ত বাঙালির কাছে অতিপরিচিত ত্রিনিদাদ ও তোবাগো এবং সেন্ট লুসিয়াকেও নাড়িয়ে দিয়েছে।

কম্পনের ফলে রাজধানী পোর্ট অফ স্পেনে বাড়িঘরে ফাটল ধরেছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। বাড়ির চাঙড় খসে পড়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে গাড়ি। অনেক জায়গাতেই বিদ্যুতও চলে গিয়েছে বলে খবর। তবে এই কম্পনের ফলে সুনামির কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে ইউএস প্যাসিফিক সেন্টার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন