স্টকহোলম: উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান আসাঞ্জের বিরুদ্ধে ধর্ষণের তদন্ত বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল সুইডেন। সুইডেনের পাবলিক প্রসিকিউশন দফতরের পরিচালক ইতিমধ্যেই আসাঞ্জের বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রেফতারি পরোয়ানা তুলে নেওয়ার জন্য আদালতের কাছে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন। জুলিয়ান আসাঞ্জ অবশ্য বরাবর তাঁর বিরুদ্ধে আনা ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছেন।

ধর্ষণের তদন্ত বন্ধ করে দেওয়ার খবর পাওয়ার পর জুলিয়ান আসাঞ্জ বলেছেন, ধর্ষণের অভিযোগে তাঁকে যে গ্রেফতারের চেষ্টা হয়েছিল তা তিনি কখনও ভুলতে পারবেন না, কাউকে ক্ষমাও করতে পারবেন না। এই অভিযোগেই গ্রেফতার এড়াতে আসাঞ্জ ২০১২ সাল থেকে লন্ডনে ইকুয়েডরের দূতাবাসে আশ্রয় নিয়ে রয়েছেন।

সুইডেনের এই সিদ্ধান্তকে ‘গুরুত্বপূর্ণ জয়’ বলে বর্ণনা করে আসাঞ্জ জানিয়েছেন, তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং গ্রেট ব্রিটেনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি আছেন।

জুলিয়ান আসাঞ্জের আশঙ্কা ছিল, তাঁকে গ্রেফতার করে সুইডেনে পাঠিয়ে দেওয়া হলে সুইডিশ কর্তৃপক্ষ সেখান থেকে তাঁকে আবার যুক্তরাষ্ট্রে পাঠিয়ে দেবে। কিন্তু সুইডেন তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের তদন্ত বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সুইডেনের দিক থেকে তাঁর এই বিপদ কাটল। তবু তাঁর আশঙ্কা কিছুতেই যাচ্ছে না। তাঁর ধারণা, ইকুয়েডরের দূতাবাস ছেড়ে বেরিয়ে এলে তাঁকে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ গ্রেফতার করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাঠিয়ে দিতে পারে। ইতিমধ্যে আসাঞ্জকে নিরাপদে গ্রেট ব্রিটেনের বাইরে যেতে দেওয়ার জন্য ইকুয়েডর ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছে।

হাজার হাজার গোপন সামরিক ও কূটনৈতিক দলিল ফাঁস করার অভিযোগে আসাঞ্জকে বিচারের মুখোমুখি করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here