তাইপেই: আমেরিকার কংগ্রেসের ‘হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে’র স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সফরকে অজুহাত খাড়া করে তাইওয়ানের সামরিক আগ্রাসনের পরিকল্পনা করেছে চিন। মঙ্গলবার তাইওয়ানের বিদেশমন্ত্রী জোসেফ য়ু।

মঙ্গলবার জোসেফ বলেন, ‘‘তাইওয়ান প্রণালী-সহ সমুদ্রের বিভিন্ন অংশে চিনের ‘পিপলস লিবারেশন আর্মি’ (পিএলএ) যে যুদ্ধ-মহড়া শুরু করেছে, তার একটাই লক্ষ্য— আমাদের বিরুদ্ধে সামরিক আগ্রাসন।’’ তাইওয়ান প্রণালীতে শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য আন্তর্জাতিক মহলকে সক্রিয় হওয়ারও আবেদন জানিয়েছেন তিনি।

পেলোসির তাইওয়ান সফরকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহের গোড়া থেকে যে উত্তেজনার স্ফুলিঙ্গ ছড়াতে শুরু করেছিল, তা এখনও বন্ধ হয়নি। চিনসাগরের ‘দ্বীপরাষ্ট্রের’ ছ’দিক থেকে ঘিরে শি জিনপিংয়ের সেনার যুদ্ধের মহড়া এবং লালফৌজের যুদ্ধবিমানের ধারাবাহিক আকাশসীমা লঙ্ঘন চলছে এখনও।

তাইওয়ান প্রণালী-সহ দক্ষিণ চিন সাগরের বিভিন্ন অংশে চিনা রণতরী ও ‘অ্যাম্ফিবিয়ান ল্যান্ডিং ভেহিকলস’ মোতায়েনের খবর মিলেছে। নেমেছে পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম ডুবোজাহাজও। এই মহড়া কত দিন চলবে, চিন তা স্পষ্ট করে জানায়নি বেজিং।

মহড়ার বিষয়ে চিনা বিদেশ দফতরের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিনের মন্তব্য, ‘‘তাইওয়ান তো আমাদের ভূখণ্ডেরই অংশ। তাই এ ক্ষেত্রে আমরা নিজেদের জলসীমার মধ্যেই সামরিক মহড়া চালাচ্ছি। এতে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের প্রশ্নই উঠছে না।”

আরও পড়তে পারেন: 

বুধবার বিকেল ৪টেয় নীতীশের শপথগ্রহণ, কোন পদে তেজস্বী

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাসভবন চত্বরে কালো চিল, সতর্ক নিরাপত্তা এজেন্সি

৭ দল, ১৬৪ বিধায়কের সমর্থন নিয়ে বিহারে নতুন সরকার, নিশ্চিত করলেন নীতীশ কুমার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন