বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের নজরে এ বার সমাজের কোণঠাসা কিশোরীরা

0

খবর অনলাইন: কিশোরীরা আজ বহুবিধ চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন। তাই আজ সোমবার বিশ্ব জুড়ে যে জনসংখ্যা দিবস পালিত হচ্ছে তার থিম হল ‘ইনভেস্টিং ইন টিনএজ গার্লস’ অর্থাৎ ‘কিশোরীদের কর্তৃত্বদান’। এর উদ্দেশ্য হল, কিশোরীদের সুরক্ষা দেওয়া এবং তাদের মধ্যে মানবাধিকারবোধ জাগিয়ে তোলা।

বিশ্বের বহু জায়গায় আজও কন্যাসন্তানদের নানা রকম বাধা, প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে চলতে হয়। বহু জাতি, বহু ধর্মের মানুষ আছেন যাঁরা এখনও পর্যন্ত তাঁদের কন্যাসন্তানদের স্কুলে পাঠানোর পরিবর্তে শ্বশুরবাড়ি পাঠাতে আর সন্তানধারণ করাতে বেশি আগ্রহী। মেয়েদের জোর করে ছাত্রীজীবনে ইস্তফা দিতে বাধ্য করা হয়। ফলে তাদের ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়। আর যারা স্কুলে পড়া চালিয়ে যেতে পারে, তাদেরও স্বাস্থ্য, মানবাধিকার, বংশবৃদ্ধি সংক্রান্ত বিষয়ে ন্যূনতম তথ্যটুকু দেওয়া হয় না। ফলে তারা সহজেই অসুস্থতা, আঘাত ও শোষণের শিকার হয়ে পড়ে। প্রান্তিক কিশোরীদের মধ্যে, বিশেষত যারা দরিদ্র, যারা প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাস করে কিংবা যারা জাতিগত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের, তাদের মধ্যেই এই অবহেলা বেশি দেখা যায়। অথচ এই কিশোরীদের হাতে যদি ক্ষমতা তুলে দেওয়া হয়, নিজেদের অধিকার সম্পর্কে যদি সচেতন করা যায় এবং জীবনে সফল হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় হাতিয়ার যদি তুলে দেওয়া যায়, তা হলে তারাই তাদের সম্প্রদায়ে ইতিবাচক পরিবর্তনের বাহক হয়ে উঠতে পারে।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে এক বার্তায় রাষ্ট্রপুঞ্জের ফ্যামিলি প্ল্যানিং অ্যাসোসিয়েশনের (ইউএনএফপিএ) এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ড. বাবাটুন্ডে ওসোতিমেহিন বলেছেন, সমাজের কোণঠাসা কিশোরীদের অধিকারের বিষয়টিতে বিশ্বনেতা এবং বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নজর দিতে হবে এবং তাদের অধিকারের সপক্ষে এক যোগে দাঁড়াতে হবে, বিশেষ করে তাদের জন্য যারা দরিদ্র, যারা স্কুলশিক্ষার বাইরে, যারা শোষিত, যারা বাল্যবিবাহের মতো যুগ যুগ ধরে চলে আসা ক্ষতিকর প্রথার শিকার।

ইউএনএফপিএ-র কর্মসূচির লক্ষ্য হল, বাল্যবিবাহ বন্ধ করা, কিশোরী বয়সে সন্তানধারণ ঠেকানো এবং জীবন ও স্বাস্থ্য সম্পর্কে তাদের অধিকার জাগিয়ে তোলা।

জনসংখ্যা বিষয়ক বিভিন্ন ইস্যুতে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জের উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) গভর্নিং কাউন্সিলের সুপারিশে ১৯৮৯ থেকে প্রতি বছর ১১ জুলাই দিনটি বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস হিসাবে পালিত হয়ে আসছে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন