zimbabwe

ওয়েবডেস্ক: যতই সে দেশের সেনা অস্বীকার করুক, জিম্বাবোয়েতে যেটা হয়েছে সেটা সামরিক অভ্যুথানই। জানিয়ে দিল আফ্রিকান ইউনিয়ন। পাশাপাশি জিম্বাবোয়ের সংবিধান মেনে সে দেশের সংকট দূর করার আবেদন করল তারা।

আফ্রিকান ইউনিয়নের চেয়ারপার্সন মৌসা ফকি মহামত বলেন, জিম্বাবোয়ের অবস্থার ওপরে নজর রাখছেন তাঁরা। গণতন্ত্র, এবং নির্বাচন সংক্রান্ত আফ্রিকার ইউনিয়নের চার্টার মেনেই এই সংকট যাতে দূর করা হয়, সে কথা বলেছেন মহামত।

উল্লেখ্য, বুধবার রাত থেকে জিম্বাবোয়ের ক্ষমতা দখল করলেও, সামরিক অভ্যুথানের কথা অস্বীকার করেছে সেনা। তাদের দাবি শুধুমাত্র প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের আশেপাশে থাকা অপরাধীদের কবজা করতেই এই কাজ করা হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট সুস্থ রয়েছেন বলেও দাবি করে সেনা।

এ দিকে বুধবার বিকেলে দেশের ক্ষমতাসীন দল জিম্বাবোয়ে আফ্রিকান ন্যাশনাল ইউনিয়ন-পেট্রিয়োটিক ফ্রন্ট জানিয়ে দেয় মুগাবে সুস্থ থাকলেও তাঁকে গৃহবন্দি করা হয়েছে। মুগাবের গৃহবন্দি থাকার খবর নিশ্চিত করেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জেকব জুমাও।

১৯৮০ থেকে দেশের মসনদে থাকা মুগাবের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের ক্ষোভ বাড়ছিল। দেশের অর্থনীতির এবং স্বাস্থ্যব্যবস্থার করুণ দশার জন্য কাঠগড়ায় উঠেছিলেন তিনি। মানুষের এই ক্ষোভকেই কাজে লাগিয়ে ‘অভ্যুথান’-এর সিদ্ধান্ত নেয় সেনা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here