‘সীমিত পরিস্থিতি’ ছাড়া মার্কিন সেনায় রূপান্তরকামীদের নিষিদ্ধ করলেন ট্রাম্প

0

ওয়াশিংটন: তিনি রূপান্তরকামীদের বিরোধী, এ অবস্থান অনেক আগেই স্পষ্ট করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ বার কার্যক্ষেত্রেও তাঁর অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন তিনি। মার্কিন সেনাবাহিনীতে থাকা অধিকাংশ রূপান্তরকামী জওয়ানের ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে নির্দেশিকা জারি করলেন তিনি।

হোয়াইট হাউস থেকে এই সংক্রান্ত একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘সীমিত পরিস্থিতি’ ছাড়া রূপান্তরকামীরা আর মার্কিন সেনায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। সেই ‘সীমিত পরিস্থিতি’ কী সেটাও পরিষ্কার ভাবে ব্যক্ত করা হয়েছে এই বিবৃতিতে। বলা হয়েছে, শুধুমাত্র ‘জেন্ডার দিসফোরিয়া রোগে আক্রান্ত’ জওয়ানরা বাহিনীতে থাকতে পারবেন। তাঁদের জন্য বিশেষ চিকিৎসা ব্যবস্থারও আয়োজন করা হবে।

হোয়াইট হাউস বা ট্রাম্পের মতে, রূপান্তরকামীরা সেনাবাহিনীতে থাকলে বাহিনীর কার্যকারিতায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

এ ব্যাপারটা প্রথম ধাপটা গত বছরেই সাঙ্গ করে ফেলেন ট্রাম্প, যখন টুইটে জানিয়েছিলেন, ওবামা জমানার একটি নির্দেশিকা বদল করতে চলেছেন তিনি। ওবামা তাঁর নির্দেশিকায় জানিয়েছিলেন, এ বার থেকে মার্কিন সেনায় যোগ দিতে পারবেন রূপান্তরকামীরা। ট্রাম্পের ওই ঘোষণার পরে তাঁর বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। ট্রাম্পকে তাঁর পছন্দের রাস্তায় হাঁটতে দেয়নি তিনটে আদালতের নির্দেশও।

ট্রাম্পের সর্বশেষ নির্দেশের পরেই বিভিন্ন মহল থেকে বিরোধিতা আসতে শুরু করেছে। ডেমোক্র্যাট নেতা ন্যানসি পেলোসি টুইট করে বলেন, “শুধুমার রূপান্তরকামী হওয়ার অপরাধে কারও সাহসিকতা আর শক্তিকে যদি অগ্রাহ্য করা হয় তা হলে এর থেকে নিন্দনীয় আর কিছু হতে পারে না। শুধুমাত্র রূপান্তরকামী মানুষদের অপমান করার জন্য এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”

ট্রাম্পের তীব্র বিরোধিতা করেছে দেশের সর্ববৃহৎ এলজিবিটি সংস্থা ‘দ্য হিউমান রাইট্‌স ক্যাম্পেন।’ সেনাবাহিনীতে রূপাঙ্করকামীদের নিয়ে কুসংস্কার ঢোকানোর চেষ্টা করছেন ট্রাম্প, এমনই অভিযোগ করা হয়েছে।”

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন সেনাবাহিনীতে রূপান্তরকামীদের ওপরে নিষেধাজ্ঞা তুলে দেন বারাক ওবামা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.