ট্রাম্পের মুখে শান্তির বার্তার পরেই বাগদাদে রকেট হামলা

0

ওয়াশিংটন ও বাগদাদ: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শান্তির বার্তা দেওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই বাগদাদের গ্রিন জোনে রকেট হামলা চালানো হল। এই হামলার দায় স্বীকার এখনও কেউ না করলেও, গোটা ব্যাপারটিতে ইরানের হাত থাকতে পারে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার ইরাকে মার্কিন সেনাঘাঁটিতে মিসাইল হানা চালায় ইরান। ৮০ জন মার্কিন ‘জঙ্গিকে’ মেরে আমেরিকার গালে সপাটে থাপ্পড় মারা হয়েছে বলে দাবিও করেন ইরানের নেতা আয়াতোল্লা খামেনেই।

কিন্তু ইরানি হানায় কোনো ক্ষতিই হয়নি বলে পাল্টা দাবি করেন ট্রাম্প। তিনি বলেন,”গত রাতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হানায় কোনো মার্কিন নাগরিকের গায়ে আঁচড় লাগেনি। আমাদের জওয়ানরা নিরাপদেই রয়েছেন। সেনা ছাউনিতে সামান্য ক্ষতি হয়েছে।”

ট্রাম্প মনে করেন, সেনাঘাঁটিতে ন্যূনতম ক্ষয়ক্ষতির মধ্যে দিয়েই ইরান যে সন্তুষ্ট থেকেছে, তার মানে তারা যুদ্ধের পরিস্থিতিকে আর ঘোরালো করতে চায় না।   

এরপরেই কিছুটা শান্তির বার্তা দিয়ে ট্রাম্প বলেন, ”আমরা হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র  তৈরি করছি। ওদের চেয়ে যুদ্ধের সরঞ্জামও উন্নত। তবে আমরা এটা ব্যবহার করতে চাই না।” তিনি প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন ইরানকে যে পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে দেবেন না তাও স্পষ্ট করেন ট্রাম্প।

তবে ট্রাম্প এই বার্তা দেওয়ার পরেই বুধবার গভীর রানে বাগদাদের গ্রিন জোনে পর পর দুটি রকেট হামলা হয়।  

ওই গ্রিন জোনেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-সহ বিভিন্ন দেশের দূতাবাস অবস্থিত। ঘটনাস্থলে উপস্থিত এএফপি সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, বুধবার গভীর রাতে পর পর দুটো বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। তার পরেই সাইরেন বেজে ওঠে এলাকায়।  

আরও পড়ুন মিসাইল হানায় আমেরিকার ৮০ ‘জঙ্গি’ নিকেশ হয়েছে: ইরান

তবে এই হামলার এখনও পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর নেই।

২৪ ঘণ্টা আগেই মার্কিন সেনাঘাঁটি লক্ষ্য করে ব্যালিস্টিক হামলা চালিয়েছিল তেহরান। ইরানের দাবি ছিল, সেই হামলায় ভয়াবহ ক্ষতির মুখে মার্কিন সেনা, যে দাবি পুরোপুরি উড়িয়ে দেন ট্রাম্প।

গ্রিন জোনে এই রকেট হামলার দায় এখনও কেউ স্বীকার না করলেও, আঙুল কিন্তু উঠছে ইরানের দিকেই।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.