অপহৃত ইউক্রেনের উদ্ধারকারী বিমান। প্রতীকী ছবি: news.abplive.com থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: আফগানিস্তান থেকে নিজের দেশের নাগরিকদের সরিয়ে নিয়ে যেতে একটি বিমান পাঠিয়েছিল ইউক্রেন। ইউক্রেনের এক মন্ত্রীর মন্তব্য উদ্ধৃত করে মিডিয়া রিপোর্টে বলা হয়েছে, ওই বিমানটিকে অপহরণ করে ইরানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা তাস (TASS) সূত্রে খবর, ইউক্রেন সরকার একটি বিমান অপহরণের কথা স্বীকার করেছে। জানানো হয়েছে, আফগানিস্তানে আটকে পড়া ইউক্রেনবাসীদের উদ্ধার করতে কাবুলে নেমেছিল ইউক্রেনের বিমানটি। এর পরই অপহরণ করা হয় সেটিকে। কিছু অজ্ঞাত পরিচয় যাত্রী নিয়ে ওই বিমানটিকে ইরানে নিয়ে যাওয়া হয়।

ইউক্রেনের উপ-বিদেশ মন্ত্রী ইয়েভগেনি ইয়েনিনকে (Yevgeny Yenin) উদ্ধৃত করে রুশ সংবাদ সংস্থা তাস বলেছে, “গত রবিবার আমাদের বিমানটিকে অপহরণ করা হয়। মঙ্গলবার আমাদের কাছ থেকে বিমানটিকে কার্যত চুরি করে ইউক্রেনবাসীদের সরিয়ে নেওয়ার পরিবর্তে কিছু অজ্ঞাত যাত্রীদের নিয়ে ইরানে উড়ে যায়। আমাদের পরবর্তী তিনটি উদ্ধারকাজের প্রচেষ্টাও সফল হয়নি, কারণ আমাদের নাগরিকরা বিমানবন্দরে প্রবেশ করতেই পারেননি”।

উপ-বিদেশমন্ত্রীর মতে, ছিনতাইকারীদের সঙ্গে অস্ত্র ছিল। তবে বিমানটিকে ‘চুরি’ করার অভিযোগ ছাড়া এ বিষয়ে আরও বিশদ কিছু জানাননি মন্ত্রী।

সংবাদ সংস্থা আরও জানিয়েছে, আফগানিস্তানে এখনও শ’খানেক ইউক্রেনবাসী আটকে রয়েছেন। তালিবানের দখলে যাওয়া আফগানিস্তান থেকে তাঁদের সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, রবিবার ৩১ জন ইউক্রেনবাসী-সহ ৮৩ জন যাত্রী নিয়ে একটি সামরিক বিমান আফগানিস্তান থেকে কিয়েভ পৌঁছেছে। ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতির দফতরের তথ্য অনুযায়ী, মোট ১২ জন সামরিক কর্মী দেশে ফিরেছেন এবং অনেক সাংবাদিক এবং সাধারণ মানুষ, যাঁরা প্রত্যাবর্তনের অনুরোধ করেছিলেন, তাঁদের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল।

খবর অনলাইন-এর আজকের আরও উল্লেখযোগ্য খবর পড়তে পারেন এখানে:

মুখ্যমন্ত্রীকে ‘থাপ্পড়’ মন্তব্যে গ্রেফতার হতে পারেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নারায়ণ রাণে

তালিবান হুমকিতেও না দমে আফগান পপ তারকা বললেন, “গান থামাব না”

দৈনিক সংক্রমণ সামান্য বাড়লেও, দেশে এক দিনে সক্রিয় রোগী পড়ল আরও ১৪ হাজার

টিকা নেওয়া এখন আরও সহজ আজ থেকে হোয়াটসঅ্যাপেও টিকার বুকিং

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন