শিকাগো: ও’হেয়ার আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে ওড়ার কথা ছিল ইউনাইটেড-এর ৩৪১১ নম্বর উড়ানের। লুইসভিল হয়ে কেন্টাকি যাবে বিমানটি। সবই হল পরিকল্পনা মাফিক। শুধু এক যাত্রীকে জোর করেই নামানোর চেষ্টা করল উড়ানের নিরাপত্তাকর্মীরা। আহত যাত্রীর তখন মুখ থেকে রক্ত পড়ছে। ব্যথায় কাতড়াচ্ছে সে। উড়ানের নিরাপত্তাকর্মীদের এই অবিশ্বাস্য আচরণ ধরা থাকল আতঙ্কিত যাত্রীদের মোবাইলে। ক্রমশ ভাইরাল হতে থাকা সেই ভিডিও ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়া এবং দেশ বিদেশের সংবাদ মাধ্যমে।

 

উড়ানের যা ক্ষমতা, তার থেকে বেশি সংখ্যক যাত্রীর বুকিং করে ফেলেছিল ইউনাইটেড বিমান সংস্থা। পরে যাত্রীদের স্বেচ্ছায় উড়ান থেকে নেমে যেতে বলা হয়। এক্ষেত্রে বিমান সংস্থার পক্ষ থেকে যাত্রীকে হয় টাকা ফেরত দেওয়া হয়, নয়তো বিকল্প উড়ানে যাত্রীর আসনের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়। কিন্তু রবিবার রাতের উড়ানের পর সোমবার সন্ধের আগে কোনো উড়ান না থাকায় যাত্রীদের কেউই স্বেচ্ছায় উড়ান থেকে নামেননি। এই অবস্থায় জোর করে হাত পা টেনে ক্ষত বিক্ষত করে এক যাত্রীকে উড়ান থেকে নামানোর চেষ্টা করেন বিমান পুলিশ। আহত যাত্রীর মুখ থেকে রক্ত পড়তে শুরু করে। এই ভয়াবহতার সাক্ষী ছিলেন উড়ানে উপস্থিত বাকি যাত্রীরা। তাঁদের মুখ থেকেই শোনা গিয়েছে আহত যাত্রীকে টেনে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি চিৎকার করছিলেন। বাকি যাত্রীরাও এই ঘটনায় ভয়ে সিঁটিয়ে যেতে থাকে। শিশুরা আতঙ্কে কেঁদে ওঠে।

বিমান কর্তৃপক্ষঅবশ্য বলছে কেবল মাত্র একজন নিরাপত্তাকর্মী ছাড়া বাকিরা প্রত্যেকেই বিমান সংস্থার নিয়ম মেনে কাজ করেছে। নিয়ম লঙ্ঘনকারী কর্মীকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। যাত্রীদের বসার ব্যবস্থা শেষ মুহূর্তে পালটানোর জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন ইউনাইটেড এইয়ারলাইনের সিইও অস্কার মুনোজ। তিনি বলেন, সরাসরি ওই যাত্রীর সঙ্গে কথা বলে পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here