ওয়াশিংটন: নিত্যনতুন রেকর্ড গড়া তাঁর নেশা নয়। তবু বিজ্ঞানচর্চার ইতিহাসে অনেক ‘প্রথম’ কিছুর তালিকায় লেখা থাকছে তাঁর নাম। তিনি মার্কিন মহাকাশচারী পেগি হুইটসন। মাস খানেকও হয়নি, বিশ্বের প্রথম মহিলা হিসেবে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের দায়িত্ব নিলেন পেগি। সোমবার ভোর রাতে তাঁর অপেক্ষায় ছিল আর এক বিশ্ব রেকর্ড। এই দিন জেফ উইলিয়ামস্‌-এর মার্কিন মহাকাশচারী হিসেবে এক টানা সব চেয়ে বেশি সময় (৫৩৪ দিন) মহাকাশে থাকার রেকর্ড ভাঙলেন পেগি।

 

আগামী সেপ্টেম্বরে পৃথিবীতে ফেরার কথা পেগি হুইটসনের। তত দিনে তাঁর ঝুলিতে থাকবে টানা ৬৬৬ দিন মহাকাশে ভেসে থাকার অভিজ্ঞতা। তবে রুশ মহাকাশচারী গেন্নাদি পাদাল্কার ৮৭৯ দিনের রেকর্ড আপাতত অধরাই থাকল মার্কিনদের জন্য।

পেগি অবশ্য এ সবের তোয়াক্কা করেন না। বিজ্ঞানকে নিয়ে, বিজ্ঞানের জন্য পথ চলাই তাঁর স্বপ্ন। গত মাসে মহাকাশ ভ্রমণের (কোনো মহাকাশযান ছাড়া) সময় সুনীতা উইলিয়ামস্‌-এর রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছে পেগির রেকর্ড। তবে রেকর্ড ভেঙে নিয়মিত নতুন রেকর্ড গড়াই যে হুইটসনের লক্ষ্য নয়, এই বিষয়ে তিনি স্পষ্টই জানিয়েছেন।

তাঁর দীর্ঘ সময় মহাকাশে থাকার অভিজ্ঞতাকে বিজ্ঞানের কাজে লাগাতে চান পেগি। মঙ্গল গ্রহে মহাকাশচারী পাঠালে এই অভিজ্ঞতা খুবই কাজে লাগবে, সে ব্যাপারে আশাবাদী তিনি। মাধ্যাকর্ষণের প্রভাব থেকে মুক্ত হয়েও সব চেয়ে বেশি কতটা সময় সুস্থ শরীরে কাটানো যায়, তাই নিয়ে আপাতত গবেষণায় ব্যস্ত পেগি হুইটসন।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here