খবরঅনলাইন ডেস্ক: অ্যাস্ট্রাজেনেকা (AstraZeneca) ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের (Oxford University) তৈরি করোনাভাইরাসের টিকার ট্রায়ালে ব্রাজিলে একজন স্বেচ্ছাসেবকের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর চাউর হয়ে গিয়েছিল। বুধবার ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ এই খবর জানিয়েছিল।

তবে পরে জানা গিয়েছে ওই স্বেচ্ছাসেবককে টিকা দেওয়া হয়নি। এর পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে ট্রায়াল থামানো হবে না।

Loading videos...

ব্রাজিলের সাও পাওলোর ফেডারেল বিশ্ববিদ্যালয় করোনার টিকার তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করছে। তারা জানিয়েছে যে মৃত ২৮ বছরের ওই যুবক রিও ডি জেনেরোতে থাকতেন। তবে কী কারণে তিনি মারা গিয়েছেন, সে বিষয়ে বিশেষ কিছু খোলসা করেনি বিশ্ববিদ্যালয়।

এ বিষয়ে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ব্রাজিলের ঘটনাটির পর পুরো বিষয়টির পর্যালোচনা করা হয়েছে। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের নিরাপত্তার কোনো সমস্যা নেই বলেও দাবি তাদের। এটাতে কোনো ঝুঁকিও নেই। সে কারণে ব্রাজিলের স্বাধীন নিয়ন্ত্রক সংস্থা টিকার ট্রায়াল চালিয়ে যেতে নির্দেশ দিয়েছে।

ব্রাজিলে সরকার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা কেনার পরিকল্পনা করছে। এই বিষয়ে চুক্তিও করে ফেলেছে তাড়া। এ ছাড়া, চিন থেকেও টিকা কেনার প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা।

উল্লেখ্য, কোভিডে আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও, মৃত্যুর নিরিখে ব্রাজিলের অবস্থান দ্বিতীয় স্থানে। ৫৩ লক্ষের কিছু বেশি আক্রান্ত হয়েছে ওই দেশে। মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৫৫ হাজারেরও বেশি। তবে ব্রাজিলের সংক্রমণের হার সাংঘাতিক, প্রতি ১০০ টেস্টে ওই দেশে ২৯.৬১ জনের টেস্ট পজিটিভ আসছে। এই তুলনায় ভারতে এখন সংক্রমণের হার মাত্র ৭.৮৯ শতাংশ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

ষষ্ঠীর সকাল থেকে কলকাতায় ঝোড়ো হাওয়া, উপকূলে বৃষ্টি শুরু

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.