Polar Bear
শিল্পাঞ্চলে পোলার বিয়ার

মস্কো: ক্লান্ত, অবসন্ন, ক্ষুধার্ত একটি পোলার বিয়ার। নিজের সুমেরু অঞ্চলীয় এলাকার বাসস্থান ছেড়ে কয়েকশো কিলোমিটার দূরে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল তাকে। ভল্লুকটিকে উত্তর সাইবেরিয়ায় রাশিয়ার শিল্প শহর নরিলক্সে দেখা গিয়েছে। তার একটি ভিডিও এবং কয়েকটি ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পরিবেশবিদদের কথা অনুযায়ী, গত ৪০ বছরে এই ঘটনা এই অঞ্চলে প্রথম।

ভিডিও থেকে দেখা গিয়েছে, এটি একটি মেয়ে ভল্লুক। দৃশ্যত সে খুবই অসুস্থ এবং দুর্বল। থেকে থেকেই বেশ কয়েক ঘণ্টার জন্য মাটিতে শুয়ে পড়ছে। ক্ষণে ক্ষণে খাবারের খোঁজে এ দিক ও দিক শুঁকে বেড়াচ্ছে। তার পা কাদায় ভরে গিয়েছে।  

অলেগ ক্রাসেভস্কাই এক জন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ। তিনি ভল্লুকটির ছবিগুলি তুলেছেন। তিনি বলেন, কী কারণে ভল্লুকটি শহরে চলে এসেছে তা স্পষ্ট নয়। তবে হতে পারে ও হারিয়ে গিয়েছে। তিনি বলেন, ওর চোখে জল। ভালো করে দেখতেও পাচ্ছে না।

জলবায়ুর পরিবর্তনই তাদের অভ্যস্ত পরিবেশকে বদলে দিচ্ছে। সমুদ্রের মধ্যেকার বরফের ওপর থাকা তাদের অভ্যাস। তা হারিয়ে যাচ্ছে। ফলে জমিতে খাবারের সন্ধান করতে বাধ্য হচ্ছে। মানুষের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ হচ্ছে। বাধ্য হচ্ছে তাদের পরিচিত অভ্যস্ত পরিবেশের বাইরে চলে আসতে।

এই বছরের শুরুতে উত্তর রাশিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলিতে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছিল। তখন কয়েক ডজন ক্ষুধার্ত পোলার বিয়ারকে দেখা গিয়েছিল। তারা খাবারের খোঁজে মানুষের বসতিতে, ঘর-বাড়িতে ঢুকে পড়ছিল।

সেখানকার স্থানীয় বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞরা এসে ভল্লুকটি কেমন আছে, তা দেখবেন বলে ঠিক করেছেন।

জানা গিয়েছে, এলাকার মানুষরা ভল্লুকটির ছবি তোলার জন্য এসেছিল। কিন্তু স্থানীয় পুলিশ তাদের ভল্লুকটির খুব কাছে যাওয়া থেকে আটকেছে।  

অলেগ জানিয়েছে, ভল্লুকটিকে নিয়ে ঠিক কী করা হবে এখনও তা পরিষ্কার নয়। কারণ সে খুবই দুর্বল ও অসুস্থ। ফলে তার নিজের বাসস্থানে ফিরিয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে তা অসুবিধাজনক।

আরও পড়ুন – মার্কিন মুলুকে মৃত একই পরিবারের চার ভারতীয়, চাঞ্চল্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here