wildfire

ক্যালিফোর্নিয়া: প্রকৃতির রোষ যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। একের পর এক হারিকেনের পর এ বার তাণ্ডব দেখানো শুরু করেছে দাবানল।

দেশের কালিফোর্নিয়া প্রদেশের উত্তরাংশে এই দাবানলের তাণ্ডবের ফলে এখনও পর্যন্ত দশ জনের মৃত্যু হয়েছে। বহু মানুষ আহত এবং নিখোঁজ। প্রায় দেড় হাজার বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সব থেকে বেশি প্রভাব পড়েছে প্রদেশের নাপা, সানোমা এবং ইউবা কাউন্টিতে। এর মধ্যে সানোমাতেই মৃত্যু হয়েছে সাত জনের। অন্তত কুড়ি হাজার মানুষ নিজের বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ স্থানে সরে গিয়েছে। কালিফোর্নিয়ার গভর্নর জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন।

জরুরি অবস্থার কথা ঘোষণা করে জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “এই দাবানলের ফলে প্রচুর বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতির মাত্রা আরও বাড়তে পারে। তাই বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য আবেদন করা হচ্ছে।”

রবিবার রাতে শুরু হয় এই দাবানল। তবে কী ভাবে এই দাবানল শুরু হয়েছে সে ব্যাপারে কিছু বলতে পারছে না স্থানীয় প্রশাসন। আগুনের ভয়ংকর গ্রাসে দমকলকর্মীরা কাজ করতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন নাপা কাউন্টির অগ্নিনির্বাপণ দফতরের প্রধান।

ওয়াইনের জন্য বিখ্যাত এই অঞ্চলে রয়েছে প্রচুর ভাইনার্ড। সেখানকার কর্মীদের উদ্ধার করা হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে।

গরম, শুষ্ক আবহাওয়া এবং হাওয়ার প্রভাবে দাবানল ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ছে বলে জানা গিয়েছে। কালিফোর্নিয়া অগ্নিনির্বাপণ দফতরের তরফ থেকে বলা হয়েছে প্রদেশে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৭০ হাজার একর কৃষিজমি সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কালিফোর্নিয়ার ইতিহাসে এটি অন্যতম ভয়ংকর দাবানল বলে জানানো হয়েছে। এমনকি এই আগুনকে এখনই কবজা করতে না পারলে কিছু দিনের মধ্যে সান ফ্রান্সিস্কোতেও এর প্রভাব পড়তে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত মাসেই ভয়ংকর দাবানলের কবলে পড়েছিল কালিফোর্নিয়ার রাজধানী লস আঞ্জেলেস।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here