ওয়েবডেস্ক : এক মহিলা স্বামীর বিশ্বাসঘাতকতার কথা জানতে পারলেন মাঝআকাশে। স্বামী তখন ঘুমোচ্ছেন। আর তার পর? যাওয়া হল না গন্তব্যে। মাঝপথেই বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়া হল গোটা পরিবারকেই।

এমন ঘটনা ঘটেছে কাতার এয়ারওয়েজের উড়ান কিউআর ৯৬২ তে।

দোহা-বালি উড়ানে উঠেছিলেন এই ইরানি দম্পতি ও তাদের একটা সন্তান। বিমান ছাড়ার ঘণ্টা খানেক পর মহিলার স্বামী হঠাৎ ঘুমিয়ে পড়েন। সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করে মহিলা তাঁর স্বামীর মোবাইল ফোনের লক খুলে ফেলেন। তার পরই চালান ফোনে তল্লাশি। আর তাতেই ধরা পড়ে স্বামীর বিশ্বাসঘাতকতার নমুনা।

তিনি হইচই শুরু করেন। স্বামীর সঙ্গে রাগারাগি করতে শুরু করেন। সেই পরিস্থিতি সামলানোর জন্য বিমানকর্মীরা এগিয়ে যান। তাঁকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। তখন মহিলা তাঁদের সঙ্গেও বাজে ব্যবহার করেন।

বিমানকর্মীদের অভিযোগ, ওই মহিলা মদ্যপ ছিলেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে দেখে বিমানকর্মীরা তাঁদের বিমান থেকে নামিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

এক জন বিমান আধিকারিক জানান, বিমানটা ভারতে থামার কোনো কথাই ছিল না। কিন্তু সমস্যা মেটাতে বাধ্য হয়েই ওই মহিলা আর তাঁর স্বামী-সন্তানকে তাঁরা চেন্নাইয়ে নামিয়ে দিয়ে বালির দিকে রওনা দেন।

এর পর ওই মহিলা শান্ত না হওয়া পর্যন্ত তাঁদের বিমানবন্দরেই রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন চেন্নাইয়ের বিমান কর্তৃপক্ষ। তার পর তাঁদের কুয়ালালামপুরের উড়ানে চাপিয়ে দেওয়া হয়। সেখান থেকে তাঁরা পরবর্তী উড়ানে দোহা ফিরে যান। এঁদের কাছে ভারতের ভিসা ছিল না বলে নিরাপত্তার স্বার্থে কিছু নিয়মকানুনের মধ্যে দিয়ে যেতে হয় বলে জানান ওই আধিকারিক।

এ বিষয়ে কাতার এয়ারওয়েজ জানিয়েছে, যাত্রীদের ব্যক্তিগত ব্যাপারে তারা কথা বলতে চায় না।

এমন অদ্ভুত ঘটনা বিমানে প্রায়ই ঘটে। গত বছরে এক যাত্রী ভুয়ো বোমাতঙ্ক ছড়িয়ে ছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল এক জন জেট বিমানকর্মীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা। তিনিই গত বছর বিমানের বিজনেস ক্লাসে যাওয়ার সময় তাঁর খাবারে আরশোলা দেওয়া হয়েছে আর তা খেয়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বলে উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টা করেন।

চলতি বছরের মার্চের আর একটা ঘটনা। এক জন মিশরীয় একটা বিমান হাইজ্যাক করার চেষ্টা করেন। আর সাইপ্রাসে বিমান নিয়ে যাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন। কারণ তিনি তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীকে দেখতে চান। যদিও ছয় ঘণ্টা পরেই তিনি আত্মসমর্পণ করেন।

আবার ২০১৬ সালের ডিসেম্বরের একটা ঘটনা। একটা বিমান উড়ে যাওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যে ফিরে আসে। কারণ ছিল এক দম্পতি বিমানকর্মীদের সঙ্গে ঝগড়া শুরু করে দেয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here