লন্ডন: জোয়ানা পালানিকে মনে আছে? নামে হয়তো তিনি তত পরিচিত নন, যতটা পরিচিত তিনি ছবিতে। বছর দুয়েক আগে আইসিস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কুর্দি বাহিনীর লড়াইয়ে বেশ কয়েকবার ফুটে উঠেছে বছর তেইশের এই কুর্দি যুবতীর ছবি। হাতে বন্দুক, পরনে যুদ্ধের পোশাক। সেই জোয়ানাকে খুন করার জন্য ১০ লক্ষ ডলারের পুরষ্কার ঘোষণা করল আইসিস জঙ্গিগোষ্ঠী।

ইরাকি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, একটি বিবৃতির মাধ্যমে জোয়ানার বিরুদ্ধে এই পুরষ্কারের কথা ঘোষণা করেছে আইসিস। যদিও নিজের দেশ ডেনমার্কেই কারাবাসের খাঁড়া ঝুলছে জোয়ানার ওপর। গত বছর জুনে তাঁর বিরুদ্ধে বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে ডেনমার্ক। কিন্তু তিনি সেই নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে মধ্যপ্রাচ্যে পাড়ি দেন। সেপ্টেম্বরে ডেনমার্কে ফিরে আসার পর তাঁকে গ্রেফতার করে ডেনমার্ক পুলিশ। বুধবার সেই মামলার শুনানি রয়েছে। জোয়ানার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে দু’বছরের জেল হতে পারে তাঁর।

ইরানি কুর্দি বংশোদ্ভূত জোয়ানার জন্ম হয় প্রথম উপসাগরীয় যুদ্ধের সময়ের ইরাকের রামাদিতে একটি শরণার্থী শিবিরে। সেখান থেকে তাঁর পরিবার ডেনমার্কে আশ্রয় গ্রহণ করে। ২০১৪-তে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন, পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে ইরাক চলে আসেন আইসিসের বিরুদ্ধে কুর্দি বিদ্রোহে যোগ দেওয়ার জন্য। 

আইসিস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ সংক্রান্ত ফেসবুকে একটি পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, “নারীর অধিকার, গণতন্ত্রের জন্য আমি লড়াইয়ে নেমেছি।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here