রাতভর প্রায় সাড়ে ৯ ঘণ্টা গাছের মগডালে কাটিয়ে দিলেন এক জাপানি। সোমবার রাত ১০টা থেকে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত। শেষ পর্যন্ত পাশের পুকুরে ঝাঁপ দিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। কেন তিনি গাছে উঠেছিলেন তা নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

ঘটনাটি তপসিয়া থানা এলাকার ক্রিস্টোফার রোডের। পুলিশ সূত্রের খবর রাত ১০টা নাগাদ একটি ৩০ ফুট উঁচু নিমগাছের মগডালে উঠে চিৎকার করতে থাকেন এই বিদেশি। বিদেশি ওই যুবক এক জন জাপানি। তাঁর  চিৎকার শুনে সেখানে জড়ো হন এলাকাবাসী। এলাকার লোকজন তপসিয়া থানায় খবর দেন। ঘটনাস্থলে আসে কলকাতা পুলিশের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও। তারা গাছের ডাল কেটে মই-এর সাহায্যে ওই বিদেশিকে নামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। ওই বিদেশি জাপানি পুলিশ ডাকার কথা বললে অবশেষে এক জন দোভাষীকে ডাকা হয়। জানা যায়, এক সপ্তাহ আগে ওই যুবক কলকাতায় আসেন। তার পর তাঁর পাসপোর্ট-সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ নথি হারিয়ে যায়।

সারা রাত চেষ্টা চালানোর পরেও তাঁকে নামানো যায়নি। শেষমেশ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ ওই জাপানি যুবক পাশের একটি পুকুরে ঝাঁপ দেন এবং সেখান থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাঁকে আটক করে পুলিশ। তপসিয়া থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ধৃতকে। কেন তিনি গাছের ওপর উঠেছিলেন সে বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। খবর দেওয়া হয় জাপানি দূতাবাসেও।

এর আগে এই ধরনের ঘটনা ঘটলেও সে ক্ষেত্রে সাধারণত মানসিক ভারসাম্যহীন বা পরিবারের সাথে মনোমালিন্যের জেরে হাওড়া ব্রিজ, জলের ট্যাঙ্ক বা টাওয়ারে উঠেছিলেন যাঁরা, তাঁরা সকলেই ভারতীয় ছিলেন। কিন্তু এক জন বিদেশি নাগরিকের এই ধরনের ঘটনায়  বেশ খানিকটা হতভম্ব পুলিশও।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here