কলকাতা: উত্তর প্রদেশের ভোটে বিজেপির জয়ের পর থেকেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডের দাপাদাপি বেশ বেড়ে গিয়েছে। বান্ধবীর সঙ্গে গাছের তলায় বা ঝিলের পাশে বসে গল্প করলেই হানা দিচ্ছে এক দল ছাত্র। তাদের দাবি, এ রকম অশালীন ভাবে ক্যাম্পাসে বসা বা আচরণ করা চলবে না। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ধরনের হেনস্থার শিকার অনেক ছাত্রছাত্রী। তারা এ রকম হঠাৎ হানায় বেশ ভীত। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আশ্বাস দিয়েছেন, তারা এ ধরনের কাজের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক পড়ুয়া বলেন, “আমি ও আমার বান্ধবী সন্ধের মুখে ঝিলের ধারে বসে গল্প করছিলাম। সেই সময় ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের পড়ুয়া বলে পরিচয় দিয়ে আমাদের ওপর চড়াও হয় আক দল ছাত্র। তারা বলে, যুগলে বসে থাকায় ক্যাম্পাসের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।”

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও এসএফআই ছাত্র অভীক ঘোষ বলেন, “মাঝেমাঝেই এক দল বাইরের লোক নিজেদের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র বলে পরিচয় দিয়ে যুগলে থাকা পড়ুয়াদের হুমকি দিয়ে চলে যাচ্ছে। তাদের বক্তব্য, এটা প্রেম করার জায়গা নয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ ও কালচার নষ্ট হচ্ছে। প্রতিবাদ করতে গেলে গালিগালাজ করছে, কাউকে কাউকে ঘাড় ধরে তুলেও দিচ্ছে। তাদের মুখে ‘ভারতমাতা কি জয়’ স্লোগানও শোনা গিয়েছে। বিজেপি আর আরএসএস-ই যে এ ধরনের কাণ্ডকারখানা করছে তা স্পষ্ট। আমরা এ ব্যাপারে উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারের কাছে অভিযোগ জানিয়েছি।

অনেক ছাত্রছাত্রী জানান, ভারতীয় সংস্কৃতির রক্ষাকর্তা বলে আদিত্যনাথের সমর্থনে পোস্টারও পড়েছিল ক্যাম্পাসে। তাতে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডকে সমর্থন জানানো হয়েছিল।

বিগত কয়েক দিন ধরেই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডের হুমকি চলছে। যাদবপুর বরাবরই লাল দুর্গ হিসাবে পরিচিত। এখানে বাম ও অতি বাম ছাত্র সংগঠনগুলিই বেশি সক্রিয়। সাম্প্রতিক নির্বাচনে এসএফআই জয়লাভও করেছে। উত্তর প্রদেশের ভোটে বিপুল জয়ের পর এই যাদবপুরে নিজেদের প্রভাব বাড়ানোর চেষ্টা করছে গেরুয়া শিবির। তারই প্রতিফলন এই অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডের বাড়বাড়ন্ত।

এ নিয়ে বুধবার ছাত্র ইউনিয়নের সদস্যের নিয়ে এক জরুরি বৈঠকে বসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও রেজিস্ট্রার। বৈঠকের পর রেজিস্ট্রার প্রদীপ কুমার ঘোষ বলেন, “মরাল পুলিশিং চলছে ক্যাম্পাসে। আমরা কোনো ভাবেই তা মানব না। প্রশাসনকে পুরো বিষয়টি জানানো হবে। কেউ নিজের হাতে এ ভাবে আইন তুলে নিতে পারে না। আমরা এ ধরনের কাজের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেব।     

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here