সানি চক্রবর্তী:

আশঙ্কার কালো মেঘ নাইট শিবিরে। কারণ, ক্রিস লিনের চোট। বেশ গুরুতর চোটের জেরে লিনের বাকি আইপিএলে খেলা নিয়েই ধন্দ তৈরি হয়েছে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ফিল্ডিং করার সময়ে বাঁ কাঁধে চোট পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার এই মারকুটে ব্যাটসম্যান। চোটের পরেই মাঠ ছেড়ে গিয়ে সাজঘরে আইসপ্যাক বেঁধে বসে থাকতেও হয়েছে তাঁকে। সোমবার শহরে ফিরে তাঁর এমআরআই করা হয়েছে। কেকেআর শিবিরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, “এমআরআই রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে। তা হাতে পেলেই বোঝা যাবে আদতে চোট কতটা গুরুতর।”

কয়েক দিন আগে বিরাট কোহলি যে রকম চোট পেয়েছিলেন, একই ধরনের চোট পেয়েছেন লিন। কিন্তু তাঁকে বাঁ কাঁধে সমস্যার জেরে আগেও ভুগতে হয়েছে। গত দু’ বছরে বাঁ কাঁধে এই নিয়ে তৃতীয় বার চোট পেলেন লিন। সে ক্ষেত্রে তাঁর পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠতে ঠিক কতটা সময় লাগবে, তা এখনই বলা সম্ভব নয়। দশম আইপিএলে নাইটদের জার্সিতে তাঁকে আর নাও পাওয়া যেতে পারে, এ রকমও আশঙ্কাও রয়েছে। সে ক্ষেত্রে মাত্র দুই ম্যাচের পরেই থেমে যাবে লিনসিন্যাটি। তেমনটা হলে যে কেকেআর শিবির আরও বড়োসড়ো ধাক্কা খাবে, তা এক প্রকার নিশ্চিত। এমনিতেই মারকুটে ব্যাটসম্যান আন্দ্রে রাসেল ডোপিং বিতর্কের জেরে নির্বাসিত। তাই গুজরাত ম্যাচে লিনের বিগ হিটিং দেখে কিছুটা নিশ্চিন্ত হয়েছিলেন নাইট সমর্থকরা। এখন তাঁকে না পাওয়া গেলে, সে ক্ষেত্রে ফের ব্যাটিং দুর্বলতায় ভুগতে পারে শাহরুখের দল। মুম্বই ম্যাচে মণীশ পাণ্ডে বাদে কেউই আর দলকে ব্যাট হাতে ভরসা দিতে পারেননি। তাই লিনকে না পাওয়া গেলে যে নাইটদের ব্যাটিং শক্তি অনেকটাই কমে যাবে, তা বলাই যায়। এমআরআই রিপোর্টে চোটের তীব্রতা দেখেই লিনের পরিবর্ত কোনো ব্যাটসম্যানকে দলে নেওয়ার ভাবনাচিন্তা করতে চাইবে কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্ট।

প্রথম ম্যাচেই গুজরাতের বিরুদ্ধে অপরাজিত দাপুটে ৯৩ রানের সুবাদে কেকেআর সমর্থকদের মনে স্থান করে নিয়েছিলেন লিন। এ বারের বিগ ব্যাশে সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানো লিন তার ফর্মের ঝলক দেখিয়েছিলেন। কিন্তু চোটের জেরে বিষণ্ণ লিন বলেছেন, “হে ক্রিকেটঈশ্বর। আমি কী পাপ করেছি?” রাজকোটে জয়ের পরে টিম হোটেলে ফিরেই সতীর্থরা কেক মাখিয়ে দিয়েছিলেন লিনের গোটা মুখে। মুম্বই ম্যাচ জিতে ফের এক বার সেই সেলিব্রেশনে মাতারই পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু, ক্রিকেট ঈশ্বরের খাঁড়ায় ২৭তম জন্মদিনে পা দিয়ে অনিশ্চয়তায় বিষণ্ণ লিন। সঙ্গে চিন্তিত টিম ম্যানেজমেন্ট।

মাঝে দু’ দিনের বিশ্রামের পরেই বৃহস্পতিবার ইডেনে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে প্রথম হোম ম্যাচ খেলতে নামবে কলকাতা শিবির। দু’টি ম্যাচে জেতা ম্যাক্সওয়েল-ঋদ্ধিদের মোকাবিলা করার আগে হার ও লিনের চোটের জেরে বেশ বেকায়দায় কেকেআর। মাঝের দু’দিনে কী স্ট্র্যাটেজিতে ফের জয়ের রাস্তায় ফিরে আসার নকশা কালিস-গম্ভীররা ছকেন এখন সেটাই দেখার। আর সমর্থকদের উৎকন্ঠা আদৌ কতটা কমাতে পারে লিনের এমআরআই রিপোর্ট।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here