কলকাতা: ৬ মাস বড়ো ছেলে, ৬ মাস ছোটো ছেলের বাড়িতে। এভাবেই জীবন কাটে ৯৬ বছরের বৃদ্ধার। যে কটা দিন বড়ো ছেলের কাছে থাকেন, নিজেকেই নিজের রান্নাটুকু করে নিতে হয়। আর সেটা যখন পারছেনই, তখন তাঁকে ঘরে রেখে দূরে বেড়াতে চলে যাওয়াই যায়।

এই স্বাভাবিক বুদ্ধির কাজটাই করেছেন কলকাতার আনন্দপুর এলাকার চৌভাগার ব্যাঙ্ককর্মী বিকাশ নাগ।   ৯৬ বছরের বৄদ্ধা অসুস্থ মাকে বাড়িতে রেখে তালাবন্দি করে আন্দামান বেড়াতে চলে গেছেন স্ত্রী-পুত্রকে নিয়ে। ৷ পাঁচিল টপকে অসুস্থ বৄদ্ধাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ আপাতত তাকে রাখা হয়েছে পাশেই তার ছোটো ছেলের বাড়িতে৷ ঘটনায় আনন্দপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ৷

দিন দুয়েক আগে সপরিবারে আন্দামানে বেড়াতে গিয়েছেন বিকাশবাবু ৷ মাকে ঘরে রেখে তালাবন্দি করে রেখে গিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ৷ ঘরের মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি৷ রবিবার বিকেলের দিকে তার মেজ মেয়ে জয়শ্রী কয়াল তার খোঁজ করতে আসেন ৷ তিনি এসে দেখেন সব জায়গায় তালা বন্ধ ৷ বাড়ির পিছন দিকে গিয়ে বাথরুমের দিক থেকে শব্দ শুনতে পান তিনি ৷ বিষয়টি প্রতিবেশীদের জানানো হয় ৷ খবর দেওয়া হয় আনন্দপুর থানাতেও ৷

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ ৷ পুলিশ এসে পাঁচিল টপকে, তালা ভেঙে ৯৬ বছরের বৄদ্ধা সবিতা নাগকে উদ্ধার করে ৷ আপাতত তাকে রাখা হয়েছে তার ছোটো ছেলে পাশেই মদন নাগের বাড়িতে ৷ বড়ো ছেলে ও ছোটো ছেলের কাছে থাকার পাশাপাশি ওই বৃদ্ধা মাঝেমধ্যে মেয়েদের কাছে গিয়েও থাকতেন ৷ বৄদ্ধা অসুস্থ মাকে কি করে এইভাবে বাড়িতে রেখে বড়ো ছেলে কাউকে না জানিয়ে বেড়াতে গেল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আত্মীয় ও প্রতিবেশীরা ৷

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here