কবি সাহিত্যিক শরৎকুমার মুখোপাধ্যায় প্রয়াত

0

কলকাতা: ‘কৃত্তিবাস’-কিংবদন্তির সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় আর শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে আর যে দুই যুবক ‘মধ্যরাতে কলকাতা শাসন’ করতেন, তাঁদের অন্যতম শরৎকুমার মুখোপাধ্যায় প্রয়াত হলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯০ বছর। বার্ধক্যজনিত নানা অসুস্থতায় ভুগছিলেন তিনি। অবশেষে মঙ্গলবার শেষ রাতে তাঁর প্রয়াণ হল।

‘কৃত্তিবাস’ পত্রিকার অন্যতম স্তম্ভ শরৎকুমারের জন্ম ১৯৩১-এ। কৈশোর কেটেছে বেনারসে। অল্প বয়সেই কবিতা লেখা শুরু করেন। প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় নরেন্দ্র দেব সম্পাদিত ‘পাঠশালা’ পত্রিকায় ১৯৪৭-৪৮ সালে। প্রথম দিকে শরৎকুমার ‘ত্রিশঙ্কু’, ‘নমিতা মুখোপাধ্যায়’ ইত্যাদি ছদ্মনামে কবিতা লিখতেন। ‘কৃত্তিবাস’-এ কবিতা লেখা শুরু করেন স্বনামে।

চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট শরৎকুমারের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘সোনার হরিণ’ কৃত্তিবাস থেকে প্রকাশিত হয়। প্রথম কাব্যগ্রন্থেই পাঠকের নজর কাড়েন তিনি। তাঁর রচিত অন্যান্য কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘র‌্যাঁবো, ভের্লেন এবং নিজস্ব’ (১৯৬৩), ‘আহত ভ্রূবিলাস’ (১৯৬৫), ‘মৌরির বাগান এবং কিছু নতুন কবিতা’ (১৯৭২), ‘অন্ধকার লেবুবন’ (১৯৭৫) ইত্যাদি।  

শুধু কবিতা নয়, উপন্যাস বা ছোটোগল্পেও খুবই দক্ষ ছিলেন শরৎকুমার। তাঁর প্রথম উপন্যাস ‘সহবাস’, প্রকাশিত হয়েছিল শারদীয় ‘দেশ’ পত্রিকায়। উপন্যাসের বিষয়বস্তুটি দুঃসাহসিক – ওয়াইফ সোয়াপিং বা স্ত্রী পালটাপালটি। ওই উপন্যাস  ব্যাপক আলোড়ন তুলেছিল পাঠকমহলে।  

‘সহবাস’-এর পর আরও ছ’টি উপন্যাস লিখেছেন শরৎকুমার – ‘আশ্রয়’, ‘কথা ছিল’, ‘রেলকামরার যাত্রীরা’, ‘সৌতি উবাচ সঞ্জয় উবাচ’, ‘চার পাই ভাই ভাই’ এবং ‘নাশপাতির গন্ধ’। ২০০৯-এ ‘ঘুমের বড়ির মতো চাঁদ’ কাব্যগ্রন্থের জন্য শরৎকুমার সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পান।

আরও পড়তে পারেন

সজাগ থাকুন! ভিড়ে ঠাসা লোকাল ট্রেনে হাতে সূচ বিঁধিয়ে ছিনতাই

হলদিয়ার তেল শোধনাগারে ভয়াবহ আগুন, ঝলসে মৃত কমপক্ষে ৩

কথা রাখলের কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়, টপকালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ের ব্যবধান

‘বামেরা বিরোধী জায়গায় থাকাটা শুভ’, কেন বললেন ফিরহাদ হাকিম

গেরুয়া থেকে লালে ফেরার শুরু! ৮ শতাংশ ভোট বাড়ল বামেদের, কাটা গেল বিজেপি-র

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন