KPC

নিজস্ব সংবাদদাতা: ভিনরাজ্যের চিকিৎসকের পুত্রকে কেপিসি মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নাম করে ২০ লক্ষ টাকা প্রতারণার ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে একজন বিএসএনএলের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার। অন্যজন সদ্য ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেছে বলে জানা গিয়েছে। অভিযুক্তদের আলিপুর এসিজেএম আদালতে পেশ করা হলে ৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, নাম ভাঁড়িয়ে কেপিসি কলেজের কর্মী ইন্দ্রাণী চক্রবর্তীর নাম নিয়ে তাঁরা ফোন করেন বিশাখাপত্তনমের চিকিৎসক এস চন্দ্রশেখরকে। তাঁকে কেপিসি কলেজে আসতে বলা হয় ছেলেকে ভর্তি করার জন্য। ১০ই আগস্ট তিনি আসেন। তাঁদের কলেজের ক্যান্টিনে বসতে বলা হয়। তার পর চিকিৎসক-পুত্রকে ডাকা হয় অফিসের সামনে। সেখানে তাঁকে কিছু নথিপত্র দেওয়া হয় এবং তাঁর কাছ থেকে ২০ লক্ষ টাকা নেওয়া হয়। এর পর ভর্তি হওয়ার সময় তাঁরা বুঝতে পারেন প্রতারিত হয়েছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পরামর্শে তাঁরা যাদবপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় মহুয়া চক্রবর্তী ও মহসিন খান নামে দুজনকে। মহুয়া কলকাতা বিএসএনএন সার্কেলে জুনিয়ার ইঞ্জিনিয়ার পদে কর্মরত। এর আগেও প্রতারণার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করেছিল ভুবনেশ্বর পুলিশ। মহসিন সদ্য একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ থেকে পাশ করেছে। এই ঘটনায় একটি চক্র কাজ করছে বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here