কৃষক আন্দোলনের বর্ষপুর্তি উপলক্ষ্যে ২৫শে মানববন্ধন ‘ফ্যাসিস্ত আরএসএস-বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা’ মঞ্চের

0

কলকাতা: কৃষক আন্দোলনের বর্ষপুর্তি উপলক্ষ্যে আগামী ২৫ নভেম্বর বেলা ১টায় মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে ‘ফ্যাসিস্ত আরএসএস-বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা’ মঞ্চ। এই মানববন্ধন হবে ধর্মতলা থেকে মৌলালি পর্যন্ত। মঞ্চের পক্ষ থেকে এক প্রেস বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহার করার যে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন, তাকে আপামর মেহনতী মানুষের জয় বলে বর্ণনা করেছে ‘ফ্যাসিস্ত আরএসএস-বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা’ মঞ্চ। মঞ্চ মনে করে, এটা ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত ঐক্যবদ্ধ সমস্ত সংগ্রামী সাথীর জয়, সমগ্র কৃষকসমাজের জয়। তবু মঞ্চ ২৫ তারিখের পূর্বনির্ধারিত মানববন্ধনের কর্মসূচি জারি রেখেছে।   

কৃষক নেতৃত্ব জানিয়ে দিয়েছেন, মুখের কথায় চিড়ে ভেজে না। যতক্ষণ না সংসদে আইনগত ভাবে তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার হচ্ছে এবং যতক্ষণ না ফসলের ন্যূনতম মূল্যের আইনি গ্যারান্টি মিলছে এবং বিদ্যুৎ বিল প্রত্যাহার হচ্ছে, ততক্ষণ আন্দোলন জারি থাকবে। কৃষক নেতৃত্ব শেষ দাবি আদায় পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর। তাই কৃষক নেতৃত্বের সঙ্গে সুর মিলিয়েই ২৫ তারিখে মানববন্ধন হবে।

প্রত্যেকটি জনবিরোধী ফ্যাসিস্ত নীতি যথা শ্রমকোড, এনআরসি-এনপিআর-সিএএ, ইউএপিএ ও নয়া শিক্ষানীতি বাতিলের দাবিতে, বিএসএফ-দিয়ে বাংলা ও পাঞ্জাবের জনবসতি ঘিরে ফেলার প্রতিবাদে, সংখ্যালঘুদের ওপর জুলুম-অত্যাচার বন্ধের দাবিতে, ব্যাংক-বীমা-রেল-বিমানবন্দর বিক্রি এবং কর্পোরেটদের কাছে দেশ বিক্রি-সহ নানা দমননীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেও এই মানববন্ধনের ডাক দেওয়া হয়েছে।

‘ফ্যাসিস্ত আরএসএস-বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা’ মঞ্চের পক্ষ থেকে সংগ্রামরত কৃষকদের কুর্নিশ জানিয়ে কুশল দেবনাথ, শঙ্কর দাস, কস্তুরী বসু, শামিম আহমেদ এক প্রেস বিবৃতিতে বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার সাথে সাথে দিল্লির সিঙ্ঘু, টিকরি, গাজিপুর সীমান্ত-সহ বিভিন্ন রাজ্যে সংগ্রামরত কৃষকরা উল্লাসে ফেটে পড়েছেন। এক বছরের মরণপণ সংগ্রামে প্রায় ৭০০ শহিদের শাহাদাত ব্যর্থ হয়নি। শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা উপেক্ষা করে লক্ষ লক্ষ কৃষক পরিবারপরিজন নিয়ে খোলা রাস্তায় মাসের পর মাস, দিনের পর দিন মাটি আঁকড়ে পড়ে থাকার লড়াই অবশেষে সাফল্যমণ্ডিত হল। কৃষক আন্দোলন প্রকৃতপক্ষেই পাঞ্জাব হরিয়ানা অঞ্চলে এক সামাজিক আন্দোলনের রূপ নিয়েছিল।”

ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, “পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থানের বাইরে একের পর রাজ্যে মহাপঞ্চায়েতের প্রস্তুতি, সমাবেশ এবং সাফল্য দেশ জুড়ে ফ্যাসিস্ত সরকারের বিরুদ্ধে গণসংগ্রামের যে উন্মাদনা তৈরি করেছিল শাসকগোষ্ঠী তাতে দৃশ্যতই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিল। বিজেপি-আরএসএস-এর গড় নির্বাচনমুখী উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লক্ষ্ণৌতে আসন্ন মহাপঞ্চায়েত নিয়ে যে ভাবে পারদ চড়ছিল, প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর বিমান নামতে দেওয়া হবে না বলে কৃষক নেতাদের হুংকার যে ভাবে জন-নির্ঘোষে পরিণত হচ্ছিল তাতে বিজেপির ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্থ স্নায়ু ভেঙে পড়েছে।”

আরও পড়তে পারেন

কলকাতা ও হাওড়া পুরভোটে বামফ্রন্টের সঙ্গে জোটের সম্ভাবনা খারিজ করলেন অধীররঞ্জন চৌধুরী

লোকসভায় বিজেপি পাবে ৩টি আসন, শুভেন্দু অধিকারীর জেলায় শূন্য, ফাঁস সৌমিত্র খাঁ-র বিস্ফোরক অডিয়ো

বাবুল সুপ্রিয়র গাড়ি আটকে ধাক্কাধাক্কি, ফিরহাদ হাকিমের সভামঞ্চ ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ ত্রিপুরায়

নরেন্দ্র গিরি মৃত্যু মামলায় আনন্দ গিরি-সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করল সিবিআই

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন