কলকাতার আকাশে টাকার বৃষ্টি!

0

কলকাতা: ২৭, বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের বহুতল থেকে টাকা উড়তে শুরু করল বুধবারের দুপুরে। পথচারীরা টাকা কুড়োতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই একটা বিশাল অংশের মানুষ এলাকায় জড়ো হন। কেন ফেলা হল টাকা?

এ দিন দুপুর আড়াইটা নাগাদ আচমকা আকাশ থেকে ২,০০০ টাকা এবং ৫০০ টাকার বান্ডিল পড়তে শুরু করে। আকাশে টাকা উড়তে শুরু করলেই পথচারী এবং গাড়িচালকরা প্রথমে থতমত খেয়ে যান। তবে সম্বিৎ ফিরতেই তাঁরা সেখানে টাকা কুড়োতে শুরু করেন। যে যতটা পারেন, টাকা কুড়িয়ে নিয়ে এলাকা ছাড়েন। খবর চাউর হতেই ভিড় আরও বাড়তে শুরু করে।

এখনও পর্যন্ত সূত্রের খবরে জানা গিয়েছে, ৩.৭৪ লক্ষ টাকা উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। কিন্তু ঠিক কারা ওই টাকা ফেলেছিল, সেটা তখনই জানা যায়নি। এমনকী বহুতলের নিরাপত্তারক্ষীরাও এ বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন।

২৭ নম্বর বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের বহুতলটিতে একাধিক সংস্থার অফিস রয়েছে। ওই বহুতলের চতুর্থ এবং সপ্তম তলে তল্লাশি অভিযানে যান কেন্দ্রীয় শুল্ক দফতর (ডিআরআই)-এর গোয়েন্দারা। বেআইনি টাকা সরিয়ে ফেলতেই জানালা দিয়ে টাকা ফেলা হয়। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, বেআইনি টাকা সরানোর জন্যই উপর থেকে তা ফেলে দেওয়া হয়। এমনটাও জানা গিয়েছে, যে অফিসটি থেকে টাকা ফেলা হয়েছে, সেটি একটি কমার্শিয়াল সংস্থার অফিস।

খবর পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে চলে আসে হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও পর্যন্ত মুখ খুলতে চাননি পুলিশকর্তারা। কিন্তু এটুকু জানা গিয়েছে, আয়কর দফতরের অফিসারদের চোখে ফাঁকি দিতেই ছ’তলার ওই অফিসের টয়লেট থেকে টাকার বান্ডিলগুলি লাঠি দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে নীচে ফেলা হয়।

[ আরও পড়ুন: সোনা নয়, টমেটোয় সেজেছেন কনে, ভাইরাল ভিডিও ]

একটি সূত্রের মতে, ওই বহুতলের সাত তলার ৬০১ নম্বর ঘরে হক মার্কেন্টাইল নামে একটি সংস্থার অফিস রয়েছে। সেই অফিসেই এ দিন হানা দেন গোয়েন্দারা। সেই খবর পেয়েই শৌচাগারের জানলা থেকে কেউ বা কারা টাকার ওই টাকার বান্ডিল ফেলে দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.