arinfam-basu floatel

ওয়েবডেস্ক: গঙ্গাবক্ষে পিকনিক করতে গিয়ে তলিয়ে গেলেন কলকাতার ভাসমান হোটেল ফ্লোটেল-এর জেনারেল ম্যানেজার অরিন্দম বসু। এখনও তিনি নিখোঁজ, চলছে ডুবুরি নামিয়ে তল্লাশি।

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার ফ্লোটেল-এর তরফ থেকে কর্মচারীদের একটি পিকনিকের আয়োজন করা হয়েছিল। একটি প্রাইভেট লঞ্চ ভাড়া করে যাওয়া হয়েছিল নাজিরগঞ্জে। সেখানেই নাজিরগঞ্জের উল্টো দিকে, পোদরা ঘাটের কাছে বিকেল পাঁচটা নাগাদ তলিয়ে যান দক্ষিণ কলকাতার পঞ্চসায়রবাসী অরিন্দম বসু।

ঘটনাটি যেখানে ঘটেছে, তা পশ্চিম বন্দর থানা এলাকার মধ্যে পড়ে। সেখানেই অরিন্দম বসুর স্ত্রী স্বামীর নিখোঁজ হওয়ার পিছনে হত্যার ষড়যন্ত্রের সন্দেহে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। “পা পিছলে পড়ে যাওয়ার কোনো কারণ আমি খুঁজে পাচ্ছি না। তাই ঘটনাটির তদন্তের দাবি জানাই”, বলছেন নিখোঁজ বসুর স্ত্রী।

পুলিশ জানিয়েছে, পিকনিক চলাকালীন সেই লঞ্চে ফ্লোটেল-এর ২২ জন কর্মী উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু অরিন্দম বসু গঙ্গাবক্ষে তলিয়ে যাওয়ার পরেও তাঁরা তাঁকে উদ্ধারের কোনো চেষ্টাই করেনি। যা অরিন্দম বসুর স্ত্রী যেমন হত্যার অভিযোগ করছেন, সেই সন্দেহই বাড়িয়ে তুলছে।

জানা গিয়েছে, পিকনিকের সময় লঞ্চে উপস্থিত ওই ২২ জনকে থানায় তলব করেছে পুলিশ। পাশাপাশি, ঘটনাস্থলে এবং আশেপাশে ডুবুরি নামিয়ে অরিন্দম বসুর দেহ উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

পুলিশ জানিয়েছে, তাদের তরফ থেকে নিখোঁজ ফ্লোটেল জেনারেল ম্যানেজারের দেহ উদ্ধারের সব প্রচেষ্টাই চালিয়ে যাওয়া হবে। পাশাপাশি ঘটনায় খুনের মামলাও রুজু করেছে পশ্চিম বন্দর থানার পুলিশ।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন