বিবাদী বাগে বিস্ফোরণ কী ভাবে, প্রাথমিক ইঙ্গিত ফরেন্সিকের

0

কলকাতা: সিইএসসি বা বিএসএনেলের তার পুড়েই বিবাদী বাগে বিস্ফোরণ। প্রাথমিক তদন্তের পর সোমবার এমনটাই জানিয়েছেন ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞরা।

ফরেন্সিকের কথায় ঘটনাস্থলের ৩.৫ ফুট গভীরে সিইএসসি এবং বিএসএনএলের তার রয়েছে। সেখান থেকেই ধোঁয়া তৈরি হয়ে জমে ছিল দীর্ঘদিন। তা থেকেই মাটির নীচেই তৈরি হয় মিথেন, কার্বন মনোক্সাইড, হাইড্রোজেন গ্যাস। এরপর সেই গ্যাসের চাপেই রবিবার  বিবাদী বাগে বিস্ফোরণ হয়েছে, এমনই ধারণা।

আরও পড়ুন গাড়িশিল্পে মন্দার ছবি, বিক্রি গত ২১ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম

যদিও এই বিস্ফোরণের সমস্ত দায় অস্বীকার করেছে সিইএসসি। তাদের দাবি ছিল বৈদ্যুতিক কারণে বিস্ফোরণ হলে সিইএসসির সমস্ত সামগ্রী অটুট থাকত না।

উল্লেখ্য, রবিবার বিকেল ৫.৪০-এ বিবাদী বাগে স্টিফেন হাউজের সামনে প্রবল বিস্ফোরণ হয়। বিস্ফোরণে ফুটপাথে তৈরি হয় ১০ ফুট গভীর গর্ত। ফুটপাথের ইট ছিটকে গিয়ে পড়ে প্রায় ২০ ফুট দূরে। চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। বন্ধ করে দেওয়া হয় সমস্ত এটিএম। রবিবার হওয়ায় গোটা ডালহৌসি চত্বর ছিল শুনশান। তাই কেউ হতাহত হননি।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.