Connect with us

কলকাতা

আতঙ্কের স্মৃতি ভুলে অন্যকে সক্ষম করার কাজে ব্রতী হয়েছেন জয়দীপ

jaideep in hospital

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাখে হরি মারে কে? মৃত্যুকে স্পর্শ করেও জীবন ফিরে পেলেন এক বাঙালি যুবক। বছর ২৪-এর তরুণ পাইলটের ইচ্ছে ছিল হাজার যাত্রীকে গগন চুম্বন করিয়ে এক দেশ থেকে অন্য দেশে নিয়ে যাবেন। কিন্তু সেই আশার হাতছানি পেয়েও ভয়াবহ এক বিমান দুর্ঘটনায় ক্ষতবিক্ষত হয়ে যান ওই যুবক। কিন্তু ইচ্ছাশক্তির তীব্রতায় আজ তিনি মৃত্যুশয্যা থেকে উঠে দাঁড়িয়েছেন নতুন করে ওড়ার আশায়।

জয়দীপ বন্দ্যোপাধ্যায় নামে ওই যুবকের বাড়ি সল্টলেকে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় পাইলট হওয়ার প্রশিক্ষণ প্রায় সম্পূর্ণ করে এনেছিলেন। শুধু বাণিজ্যিক লাইসেন্স পাওয়ার অপেক্ষায়। এর মধ্যেই লেকল্যান্ড থেকে মিয়ামি ফেরার পথে ঘটে যায় সেই দুর্ঘটনা। মাটি থেকে ১৮০০ ফুট ওপর দিয়ে ওড়ার সময় বিমানটি হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে। বিমানের একটি অংশ ভেঙে পড়ে জয়দীপের পায়ের ওপরে। তাঁর বাঁ পা যায় বিমানের ভাঙা অংশের ভিতরে। এখনও সেই অভিজ্ঞতা ভুলতে পারেননি এই তরুণ পাইলট।

জয়দীপ বলেন, “ট্রমাটা কেটে গিয়েছে। এখন আর সেই ভয় তাড়া করে বেড়ায় না। কিন্তু ওই অভিজ্ঞতা ভোলা যায় না। ওই অভিজ্ঞতাকে ইতিবাচক কাজে লাগিয়ে অপেক্ষা করছি আবার কবে উড়ব।”

ঘটনাটি ঘটে ২০১৮-এর মে মাসে। সেই সময়ে প্রাইভেট প্লেনের প্রশিক্ষণে ছিলেন জয়দীপ। তিনি ও বিনোদ কুমার নামে আর এক সহ-পাইলট সেসনা ১৫২-তে মিয়ামি থেকে লেকল্যান্ড যান। রাত ৮টা নাগাদ তাঁরা ফের মিয়ামি ফিরছিলেন। বিমানটি চালাচ্ছিলেন বিনোদ। জয়দীপ জানান, তাঁরা প্রায় মিয়ামি বিমানবন্দর পৌঁছে গিয়েছিলেন। সেই সময় কন্ট্রোল টাওয়ার থেকে খবর আসে প্রবল বজ্র বিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হচ্ছে। তাই বিমানটি ঘুরিয়ে নিতে বলে। তার পরেই বিপর্যয়ের মধ্যে পড়েন তাঁরা। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঝড়ের মাঝে চলে যান তাঁরা। কোনো মতে বিমানটিকে তাঁরা উদ্ধার করে ফের উড়তে শুরু করেন।

শেষরক্ষা হয় না। ফ্লোরিডার এভারগ্ল্যাডস জাতীয় উদ্যানে গিয়ে পড়েন। বিমান ভেঙে প্রায় আড়াই ঘণ্টা  দুই পাইলট পড়েছিলেন। খবর পেয়ে মিয়ামি পুলিশের উদ্ধারকারী দল এসে চপারে করে তাঁদের নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেন। দু’ মাস আইসিইউতে ছিলেন জয়দীপ। প্রথম দিকে দুর্ঘটনার আতঙ্ক তাঁকে ঘিরে ছিল। দুর্ঘটনায় তাঁর বাঁ পা সম্পূর্ণ ভেঙে যায়। ডান কাঁধ, কবজি, এমনকি শরীরের বহু জায়গা ভেঙে গিয়েছিল। ছ’ মাস পরে ক্রাচের সাহায্যে হাঁটতে শুরু করেন ওই তরুণ পাইলট।

আরও পড়ুন দেখে নিন আয়করের নতুন নিয়ম এবং পরিমাণ

এখনই বিমান চালানোর পক্ষে শরীর উপযুক্ত হয়নি। তাই আপাতত পাইলটের প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন একটি কেন্দ্রে। সময়ের সঙ্গে অনেকটাই ক্ষীণ হয়েছে আতঙ্কের স্মৃতি। এই ভাবে মৃত্যুকে স্পর্শ করার অভিজ্ঞতা যাতে আর কারও না হয়, তার জন্য বাংলার ছেলেমেয়েদের আরও বেশি করে সক্ষম করে তোলার প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন জয়দীপ।

কলকাতা

করোনার পাশাপাশি কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শুরু হচ্ছে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা

তবে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ফের অন্যান্য রোগীর চিকিৎসাও এ বার শুরু হচ্ছে।

কলকাতা: করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় ‘কোভিড হাসপাতাল’ (Covid Hospital) হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজকে (Kolkata Medical Collage)। তবে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ফের অন্যান্য রোগীর চিকিৎসাও এ বার শুরু হচ্ছে।

শুধুমাত্র করোনার (Coronavirus) চিকিৎসা হওয়ায় তাঁদের প্রশিক্ষণ অসম্পূর্ণ থেকে যেতে পারে বলে অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নেমেছিলেন হাসপাতালের ইন্টার্ন এবং পিজিটিরা। নন-কোভিড রোগীদের পরিষেবা শুরুর দাবিতে আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে শিক্ষক-চিকিৎসকদের একাংশ প্রশ্ন তুলেছিলেন, পঠনপাঠনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে কেন পুরো হাসপাতালে শুধুমাত্র কোভিডের চিকিৎসা হবে?

গত বুধবার হাসপাতালের অধ্যাপক এবং সিনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “বিশেষজ্ঞ কমিটি যে রিপোর্ট দিয়েছে, তা মেনে চলবেন কি না দেখুন। সিনিয়রেরা জুনিয়রদের দিয়ে কাজ করালেই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে”। একই সঙ্গে তিনি জুনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মিটিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

অন্য দিকে মেডিক্যাল কলেজে রয়েছে একাধিক সুপার স্পেশালিটি বিভাগ। ‘কোভিড হাসপাতালে’র তকমা মিলে যাওয়ার পর অন্য রোগীরা দূর থেকে এসে ভোগান্তির শিকার হচ্ছিলেন। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি বিবেচনা করে দ্রুত সমস্যা সমাধানের সিদ্ধান্ত নিলেন কর্তৃপক্ষ।

জানা গিয়েছে, শীঘ্রই আউটডোর বিভাগ চালু হয়ে যাবে। পাশাপাশি অন্যান্য সমস্ত বিভাগেও রোগী ভরতি করা হবে।

এ দিন অধ্যক্ষের জারি নোটিফিকেশনে আন্দোলনকারী জুনিয়র চিকিৎসকদের দাবিকে মান্যতা দিয়েই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই এই ঘোষণাকে নিজেদের জয় বলে দাবি করেছেন আন্দোলনকারীরা।

Continue Reading

কলকাতা

শুক্রবার থেকে বন্ধ কলকাতা হাইকোর্ট

হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি বিজ্ঞপ্তি জারি করে আগামী সোমবার পর্যন্ত আদালত বন্ধ থাকার কথা ঘোষণা করেন।

Kolkata High Court

কলকাতা: আগামী শুক্রবার থেকে বন্ধ থাকবে কলকাতা হাইকোর্ট (Kolkata High court)। বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি বিজ্ঞপ্তি জারি করে আগামী সোমবার পর্যন্ত উচ্চআদালত বন্ধ থাকার কথা ঘোষণা করেন।

এ দিন বিকেল ৫টা থেকে কলকাতা-সহ রাজ্যের অন্যান্য করোনাভাইরাস (Coronavirus) কনটেনমেন্ট জোনগুলিকে লকডাউনের কড়াকড়ি নিয়ম চালু হচ্ছে। এর প্রেক্ষিতে আগামী শুক্রবার থেকে কলকাতা হাইকোর্টে জীবাণুমুক্ত করার কাজ শুরু হবে। হাইকোর্টের তিনটি বিল্ডিংকেই জীবাণুমুক্ত করা হবে। ফলে আগামী চার দিন সমস্ত রকমের কাজ বন্ধ থাকবে।

দেশব্যাপী লকডাউন শুরু হওয়ার পর বন্ধ হয়ে কলকাতা হাইকোর্ট। অনলাইনে নির্দিষ্ট কয়েকটি মামলার ভার্চুয়াল শুনানি চালু ছিল। তবে সশরীরে শুনানি ফের শুরু হয় গত ১১ জুন থেকে। কিন্তু আইনজীবীদের ভিড়ের ঠেলায় শারীরিক দূরত্ব (Social distancing) শিকেয় ওঠে বলে অভিযোগ শোনা যায়।

এ দিন হাইকোর্টের রেজিস্টার জেনারেল একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানান, “মহানগরের উল্লেখযোগ্য অংশটিকে কনটেনমেন্ট জোন হিসাবে ঘোষণা করে নতুন লকডাউন ঘোষণার কারণে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ১০-১৩ জুলাই কলকাতা হাইকোর্টের বিচার বিভাগীয় ও প্রশাসনিক কাজ স্থগিত করেছেন”।

Continue Reading

কলকাতা

অনলাইনে নয়, পড়ুয়াদের জন্য এই বিকল্প পথই বেছে নিয়েছে গড়িয়া স্টেশনের একটি স্কুল

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ২৭ মার্চ থেকে স্কুল বন্ধ। কবে খুলবে কেউ জানে না। অনেকেই মনে করছেন সেপ্টেম্বরের আগে স্কুল খোলার সম্ভাবনা নেই। আবার তখনও যে করোনার দাপট কমবে, তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই। এই পরিস্থিতিতে অনলাইন পড়াশোনা বিকল্প হয়ে উঠেছে।

কিন্তু অনলাইন পড়াশোনার সুবিধা সব জায়গায় তো হয় না। এই যেমন গড়িয়া স্টেশনের কাছে গড়াগাছায় নিউ গ্রিন বাড স্কুল। এই স্কুলের পড়ুয়াদের বেশির ভাগই নিম্নবিত্ত বা নিম্নমধ্যবিত্ত শ্রেণির অন্তর্গত। বেশির ভাগ অভিভাবকদের কাছে স্মার্টফোনের সুবিধা নেই। আবার থাকলেও নেটওয়ার্কের সমস্যা রয়েছে, ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের পর যেটা আরও বেশি করে মাথাচাড়া দিচ্ছে।

এই পরিস্থিতিতে অভিনব একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। অনলাইনে পড়ানোর বদলে তাঁরা অভিভাবকদের হাতে তুলে দিচ্ছেন পাঠক্রমে অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন বিষয়ে বাছাই করা প্রশ্ন ও তার উত্তর। প্রয়োজনে স্কুলে বসে বিভিন্ন বিষয় বুঝিয়ে দিচ্ছেন অভিভাবকদের। শুধু তা-ই নয়, অভিভাবকদের কাছ থেকে তাঁদের ফোন নম্বর নিয়ে স্কুলের সময়ের আগে বা পরে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

শিক্ষিকারা ব্যক্তিগত ভাবে যোগাযোগ করছেন পড়ুয়াদের সঙ্গে। যাদের হোয়াটস অ্যাপ আছে, তাদের কাছে অঙ্কের সমাধান বা অন্য বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর ছবি তুলে হোয়াটস অ্যাপে পাঠিয়ে দিচ্ছেন। এ ভাবেই অনলাইন পদ্ধতির বিকল্প হিসাবে ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনায় সাহায্য করে যাচ্ছে নিউ গ্রিন বাড স্কুল।

Continue Reading
Advertisement
দেশ6 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৬৫০৬, সুস্থ ১৯১৩৪

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

দেশ3 days ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

বিদেশ3 days ago

অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

ক্রিকেট2 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

রাজ্য3 days ago

বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন

দেশ24 hours ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

কেনাকাটা

কেনাকাটা18 hours ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা3 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা4 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা5 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে