নিজস্ব প্রতিনিধি: ইউনিয়নের দাবিতে গণভোটের পথে যাচ্ছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে গণকনভেনশন করে পড়ুয়ারা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আগামী ২৯-৩০ জানুয়ারি এই গণভোটের দিন ধার্য করা হয়েছে।

এ দিন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টস সায়েন্স মোড়ে এই গণকনভেশন আয়োজন করা হয়েছিল। যাদবপুরের তিনটি বিভাগের পড়ুয়ারা এই কনভেনশনে যোগ দেন। শুধু পড়ুয়ারাই নন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, শিক্ষাকর্মীরাও কনভেনশনে নিজেদের মত প্রকাশ করেছেন। সকলেই গণভোটের পক্ষেই সরব হয়েছেন কনভেনশনে।

এর আগে ২০১৪ সালে ‘হোক কলরব’ আন্দোলন চলাকালীন তৎকালীন উপাচার্য অভিজিৎ চক্রবর্তীর অপসারণ প্রসঙ্গে গণভোটের পথে গিয়েছিল যাদবপুর। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়েও বিভিন্ন সময়ে গণভোট হয়েছে।

আরও পড়ুন ‘স্বাগত চিন, বিদায় ভারত!’ কেন ভারত বিরোধী আন্দোলনে শামিল মিজোরামের যুবসম্প্রদায়?

তিন বছর ধরে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন বন্ধ। সরকারের তরফে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে রাজনীতিমুক্ত করার লক্ষ্যে অরাজনৈতিক ছাত্র সংসদ নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রথম থেকেই এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। বেশ কয়েক বার ঘেরাও করা হয়েছে উপাচার্য সুরঞ্জন দাসকেও। এ বার আন্দোলনের পরবর্তী ধাপ হিসাবে গণভোটকেই বেছে নিলেন পড়ুয়ারা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here