কলকাতা: পুরসভার দখল থাকছে তৃণমূলের হাতেই। রবিবার কলকাতা পুরসভার ১৪৪টি ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণের পর বুথফেরত সমীক্ষায় তেমনটাই জানাল সি ভোটার।

বিক্ষিপ্ত অশান্তি, বোমাবাজি, প্রতিবাদে বিরোধীদের বিক্ষোভ, কমিশনে অভিযোগের মধ্যেই শেষ হয় পুরভোট। সকাল থেকেই বিভিন্ন ওয়ার্ডে উত্তেজনা অব্যাহত থাকলেও ভোটের নিরাপত্তায় থাকা কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে শান্তিতেই সম্পন্ন হয়েছে পুরভোট। একই ধরনের মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে বুথদখল, ছাপ্পাভোট-সহ শাসকদলের ‘ভোট-দুর্নীতি’র অভিযোগে সব ওয়ার্ডেই পুনর্নির্বাচন চেয়েছে বিরোধী দল বিজেপি।

কলকাতা পুরসভায় মোট ওয়ার্ড ১৪৪। সেই হিসেবে ম্যাজিক ফিগার ৭৩। একটি বেসরকারি বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমে প্রচারিত সমীক্ষক সংস্থার বুথফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, ১৪৪-এর মধ্যে ১৩১টিতে জয় পেতে পারে তৃণমূল। অর্থাৎ, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার অনেক উপরেই থাকতে পারে তৃণমূলের প্রাপ্ত আসন সংখ্যা।

অন্য দিকে, ১৩টি ওয়ার্ডে জিততে পারে বিজেপি, এমনটাই জানিয়েছে সমীক্ষক সংস্থা। তাদের বুথফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী, বামফন্ট এবং কংগ্রেসকে থাকতে হতে পারে শূন্য হাতেই।

বলে রাখা ভালো, সমীক্ষক সংস্থা জানিয়েছে, দুপুর ৩টে পর্যন্ত সমীক্ষা চালিয়ে এমনই আভাস মিলেছে। তারা বলেছে, তৃণমূল পেতে পারে ৫৯ শতাংশ ভোট। অন্য দিকে, বিজেপি, কংগ্রেস এবং বাম পেতে পারে যথাক্রমে ২৮ শতাংশ, ৬ শতাংশ এবং ৫ শতাংশ ভোট। অন্যান্যরা পেতে পারে ২ শতাংশ ভোট।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের পুরভোটে তৃণমূল পেয়েছিল ১১৩টি আসন, বিজেপি ৭টি, বামেরা ১৬টি ও কংগ্রেস ৫টি আসন পেয়েছিল। এ বারের ভোটের ফলাফল ঘোষণা ২১ ডিসেম্বর।

*এই সমীক্ষার সঙ্গে খবর অনলাইন-এর কোনো সম্পর্ক নেই

আরও পড়তে পারেন: 

সোমবার লোকসভায় নির্বাচনী সংস্কার বিল পেশ করবে মোদী সরকার, জানুন কী কী প্রস্তাব রয়েছে

সল্টলেকে শুভেন্দু অধিকারীর বাড়ি ঘেরাও পুলিশের, জানালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর

পঞ্জাবে ফের ধর্মীয় অবমাননার অভিযোগ, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গণপিটুনিতে মুত্যু আরও এক যুবকের

নিছক নাটক! পুরভোটে বিরোধীদের অশান্তির অভিযোগ নিয়ে প্রতিক্রিয়া অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের

কলকাতা পুরভোট লাইভ: অশান্তির অভিযোগে কমিশনে বাম, বিজেপি ও কংগ্রেস

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন