giraffe

কলকাতা: বছরের শুরুতেই সানি আর বান্টি মধুচন্দ্রিমাযাপনে যাচ্ছে হায়দরাবাদ। তবে তাঁরা পাকাপাকি ভাবে বসত করতে চলেছে নিজামের শহরে। সাড়ে তিনি বছর ও দু’বছর বয়সি দুই যুবক-যুবতি হায়দরাবাদে পাড়ি দেওয়ায় খুশির হাওয়া আলিপুর চিড়িয়াখানায়। এখানেই তাঁদের জন্ম আর বেড়ে ওঠা। কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে সানি-বান্টির জন্ম হয় চিড়িয়াখানায়। কর্তৃপক্ষই দুই জিরাফের নাম রেখেছিলেন সানি ও বান্টি। বর্তমানে আলিপুরে ১০টি জিরাফ রয়েছে। অন্য দিকে এই দুটি জিরাফের বিনিময়ে চিড়িয়াখানায় আগেই চলে এসেছে এক জোড়া জ্যাগুয়ার, দু’টি সিংহ, ছ’টি মাউস ডিয়ার।

আরও পড়ুন ঃ চাঁদে চন্দ্রযান-২ পাঠানোর ব্যাপারে নতুন কী বলছে ইসরো?

চিড়িয়াখানার অধিকর্তা আসিশকুমার সামন্ত বলেছেন, “কলকাতা চিড়িয়াখানায় আমরা জিরাফের প্রজনন সফল ভাবে ঘটাতে পেরেছি। দেশের অন্যান্য চিড়িয়াখানায় জিরাফের চাহিদা থাকায় আমরা এখান থেকে পাঠাচ্ছি”।

চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানান, আড়াই হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়ার জন্য নীচু ট্রেলার-সহ সমস্ত রকম ব্যবস্থা করা হয়েছে। জিরাফ অত্যন্ত শান্ত প্রকৃতির প্রাণী। তাঁদের দীর্ঘপথে দেখভালের জন্য পাঠানো হচ্ছে দু’জন পরিচারকও। সঙ্গে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণ খাবার ও প্রয়োজনীয় ওষুধের ব্যবস্থা।

সামন্তবাবু বলেন, বাইরে থেকে আশা জ্যাগুয়ার, সিংহ ও মাউস ডিয়ারগুলিকে এক মাস ক্রেন্টাইনে রাখা হয়েছিল। গত ডিসেম্বরেই কিছু দিনের জন্য খাঁচায় আনা হয়েছিল। মধ্য ভারতের কিছু অংশে মাউস ডিয়ার পাওয়া যায়। এদের প্রায় তিন দশক পর আলিপুর চিড়িয়াখানায় আনা হয়েছে। দীর্ঘ রোগ ভোগের পর আলিপুরের শেষ স্ত্রী জ্যাগুয়াটি মারা গিয়েছে। দু’টি এশিয়াটিক সিংহ আনা হয়েছে। ভারত আর আফ্রিকার মিশ্র প্রজননে জন্ম হয়েছে এদের। এরা এখন দর্শকদের কাছে বিশেষ আকর্ষণের কেন্দ্রে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here