কলকাতা: রবিবার কলকাতা পুরসভার ১৪৪টি ওয়ার্ডের প্রতিনিধি নির্বাচনের ভোট। ৪ হাজার ৯৫৯টি বুথে প্রায় ৪০ লক্ষ ৪৮ হাজার পুরবাসী নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। মহানগরের মহারণে কলকাতা জুড়ে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা করেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। ভোট নজরদারিতে করা হচ্ছে উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার।

এ দিনের ভোটে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি হলে, প্রশাসনের তরফে জারি ১৯৫০ হেল্পলাইন নম্বরে ফোন করে অভিযোগ জানাতে পারবেন সাধারণ মানুষ। চালু থাকছে কমিশনের কন্ট্রোল রুম-২২৯০ ০০৪০/৪১। এখানে দেখে নিন ভোটের গুরুত্বপূর্ণ আপডেট:

*বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটের হার ৬৫.৪০ শতাংশ।

*৮৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী রাজর্ষি লাহিড়ীকে মারধরের অভিযোগ।

*৭৩ নম্বর ওয়ার্ডের মিত্র ইনস্টিটিউশনে ভোট দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোট দিয়ে বেরিয়ে বললেন, মানুষ শান্তিতে ভোট দিতে পেরেছেন। ভালোই ভোট হচ্ছে।

*দুপুর ৩টে পর্যন্ত ভোটের হার ৫২.৩২ শতাংশ।

*পুরভোটে অশান্তির কারণে ৭২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানাল লালবাজার। পুলিশের দাবি, শান্তিপূর্ণ ভাবেই হচ্ছে ভোটগ্রহণ।

*দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৩৭.৮৯ শতাংশ।

*পুরভোটে অশান্তির প্রতিবাদে রাজ্য নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ বাম, বিজেপি এবং কংগ্রেসের।

*পুরভোটে অশান্তির করার অভিযোগে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

*হেয়ার স্ট্রিট থানা এলাকায় ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে ক্যালকাটা অ্যাংলো গুজরাতি স্কুল ও জৈন বিদ্যালয়ে ব্যাপক উত্তেজনা। বহিরাগতদের বিরুদ্ধে বুথ দখলের অভিযোগ।

*সকাল ১১টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ১৯ শতাংশ।

*বড়তলা থানার সামনে অবস্থান বিক্ষোভে সিপিএম, কংগ্রেস এবং বিজেপি। রিগিংয়ের অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ বিরোধীদের।

*১০১, ১০২, ১১০ নম্বর ওয়ার্ডে ভোট দুর্নীতির প্রতিবাদে বাঘাযতীন মোড়ে রাস্তা অবরোধে সিপিএমের।

*শ্যামবাজারে ৭ নম্বর ওয়ার্ডে দফায় দফায় উত্তেজনা। বিজেপি প্রার্থী ব্রজেশ ঝাকে বুথে ঢুকতে বাধা, হেনস্থার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে।

*বোমাবাজির অভিযোগ ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে। ছেড়া হয়েছে তৃণমূলের ব্য়ানার, ফ্লেক্স। তৃণমূলের অভিযোগ, ভোটারদের ভয় দেখাতেই বোমাবাজির ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, কোনো প্রমাণ নেই।

*২২ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী মীনাদেবী পুরোহিতের পোশাক ছিড়ে দেওয়ার অভিযোগ। সকাল পৌনে ন’টা নাগাদ বিজেপি ও দুই নির্দল প্রার্থী বুথে ঢুকেছিলেন। সেই সময় তাঁরা আক্রান্ত হন বলে অভিযোগ।

*সকাল ৯টা পর্যন্ত গড়ে ভোট পড়েছে ১০.৮৬ শতাংশ।

*১১০ নম্বর ওয়ার্ডের গড়িয়ার ব্রিজি এটি নস্কর হাইস্কুলে সিপিএম এজেন্টকে হুমকির অভিযোগ।

*১, ৪, ১২¸১৩, ১৬, ৪৪, ৪৯, ৪৬ , ১১৯ নম্বর ওয়ার্ডে ইভিএম কাজ না করার অভিযোগ।

*৭ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল এবং বিজেপি-র হাতাহাতি। পুলিশের সঙ্গে বচসা বিজেপি কর্মীদের।

*৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে বুথের বাইরে বাইরে কয়েক জন ভোটারের অভিযোগ, ভোট দিতে না দিয়ে আঙুলে ভুয়ো কালি দিয়ে বাইরে বের করে দেওয়া হচ্ছে।

*বেলগাছিয়ার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে কুমুদিনী বিদ্যাপীঠে সাময়িক উত্তেজনা। বিজেপি-র এজেন্টকে বুথে বসতে দেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা দেওয়ার অভিযোগ।

*৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে এজেন্ট বসতে না দেওয়ার অভিযোগ কংগ্রেসের।

*২০ নম্বর ওয়ার্ডে সিসিটিভি ক্যামেরা কাগজ দিয়ে ঢেকে দেওয়ার অভিযোগ, ৮১ নম্বর ওয়ার্ডে সিসিটিভি বিকলের অভিযোগ কংগ্রেসের।

*শিয়ালদহের টাকি গার্লস স্কুলে কংগ্রেসের এজেন্টকে মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূলের।

*সকাল ৭টায় কড়া নিরাপত্তার ঘেরাটোপে শুরু হল ভোটগ্রহণ।

*ভোটগ্রহণ পর্ব শুরু হবে সকাল ৭টায়, চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। তার আগে সকাল ৬টায় শুরু মক পোল।

আরও আসছে…

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন