নির্দল হয়ে ভোটযুদ্ধে বিক্ষুব্ধরা, বহিষ্কার করল তৃণমূল

0

কলকাতা: দলের কড়া বার্তার পরেও নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি দুই তৃণমূল নেতা। শেষমেশ সচ্চিদানন্দ বন্দ্যোপাধ্যায় ও তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে বহিষ্কার করল তৃণমূল।

বিধায়ক তথা দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূলের সভাপতি দেবাশিস কুমার জানান, কলকাতা পুরসভার ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে নির্দল প্রার্থী হয়েছেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায়। ৭২ নম্বর ওয়ার্ডে নির্দল প্রার্থী সচ্চিদানন্দ বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের নির্দেশ অমান্য করে নির্দল প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তাঁরা। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন পর্যন্ত তাঁদের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। তাঁরা সেই সুযোগ নেননি। তাই দল তাঁদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গতকালই এ ব্যাপারে দেবাশিস জানিয়েছিলেন, “জেলা সভাপতি হিসেবে আমি এঁদের বহিষ্কারের সুপারিশ করব রাজ্য কমিটির কাছে। ৭২ নম্বরের সচ্চিদানন্দ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বহিষ্কারের জন্য রাজ্য কমিটির কাছে সুপারিশ করব”।

যদিও নির্দল হয়ে ভোটযুদ্ধে নামলেও বিক্ষুব্ধরা জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁদের লড়াই দলের বিরুদ্ধে নয়, দল মনোনীত প্রার্থীদের নিয়েই তাঁদের আপত্তি। জানিয়েছিলেন, নীতিগতভাবে তাঁরা পুরভোটে লড়াই করছেন।

এ বার কলকাতা পুরসভার ভোটে পুরনো কাউন্সিলরদের অনেককেই টিকিট দেয়নি তৃণমূল। যা নিয়ে একাংশ ক্ষুব্ধ। অন্য দিকে, তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায় নাম না দেখে কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বিদায়ী কাউন্সিলর পার্থ মিত্র। শোনা যায়, কংগ্রেসে যোগ দিয়ে টিকিটও পেয়ে যান তিনি। তবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই তিনি জানিয়ে দেন, “তৃণমূলেই আছি”।

আরও পড়তে পারেন:

মহাকাশ থেকে কেমন দেখতে লাগে সূর্যগ্রহণ? ছবি দেখাল নাসা

বাড়ছে ক্রিপ্টোকারেন্সি জালিয়াতি, নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে ৭ সুরক্ষা বলয়

নবম বারের জন্য অপরিবর্তিত রিজার্ভ ব্যাঙ্কের রেপো রেট, ঋণের সুদ কমবে কি?

টেস্ট বাড়ায় বাড়ল সংক্রমণ, তবে দুশোর নীচে দৈনিক মৃত্যু

কড়া শীত থেকে আর মাত্র তিন দিন দূরে দক্ষিণবঙ্গ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন