দূষণের ফলে বুধবার সকালে মুখ ঢেকেছে সাউথ সিটি। ছবি: ফেসবুক

কলকাতা: বিভীষিকাময় রাতের পর অবশেষে বৃষ্টিতে স্বস্তি এল কলকাতায়। পুজোর সময়ে বৃষ্টি অনেকেরই কাম্য নয়। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে কলকাতা যে রেকর্ড করেছিল তাতে বৃষ্টি না হলে আরও বেশি সমস্যার সৃষ্টি হত।

কালীপুজোর সন্ধ্যায় এ রকম পরিস্থিতি যে তৈরি হতে পারে তা আন্দাজ করাই গিয়েছিল। তবুও আশা ছিল সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে, সাধারণ মানুষের মধ্যে হয়তো একটু সচেতনতা তৈরি হবে। কিন্তু কোথায় কী! রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ল আতসবাজির দাপট। এমনকি রাত দশটার পরেও বাজি পুড়ল দেদার।

ফলে যা হওয়ার তা-ই হল। রাত ন’টা থেকেই বিশ্বের বাকি শহরগুলিকে পেছনে রেখে দূষণের নিরিখে শীর্ষে পৌঁছে গেল কলকাতা। কলকাতার মার্কিন দূতাবাসের তরফ থেকে জানা গেল ঠিক কতটা হারে বেড়েছে শহরের দূষণ।

একবার দেখে নিন, মঙ্গলবার রাত ন’টা থেকে বারোটা পর্যন্ত কী ভাবে বেড়েছে বাতাসের মান সংক্রান্ত সূচক।

  • রাত ন’টায়- ২০৪ (অস্বাস্থ্যকর)
  • রাত ১০টা- ৩০০ (প্রচণ্ড অস্বাস্থ্যকর)
  • রাত এগারোটা- ৪১৪ (বিপজ্জনক)
  • রাত বারোটা- ৬০০ (অত্যন্ত বিপজ্জনক)

উল্লেখ্য, এই সূচক যদি ২০০ থাকে তা হলে তাকে স্বাভাবিক বলে ধরা হয়।

তবে স্বস্তির কথা এই যে বুধবার সকালে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে বৃষ্টি নামল ঝেঁপে। এর ফলে দূষণের পরিস্থিতি অনেকটাই কমবে বলে আশা করছে বিশেষজ্ঞ মহল। তবে বুধবার যেহেতু দিওয়ালী এ দিন রাতেও বাজি পোড়ানোর সম্ভাবনা একদম উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here