স্বাগত ২০২০, তিলোত্তমার বর্ষবরণ

0
park street
পার্ক স্ট্রিটে।

ওয়েবডেস্ক: রাত ১২টা। বন্দরে জাহাজের ভেঁপু, গির্জায় গির্জায় বিশেষ ঘণ্টাধ্বনি এবং বেশ কিছু এলাকায় অবৈধ শব্দবাজি ফাটানোর মধ্য দিয়ে কলকাতা মহানগরীতে স্বাগত জানানো হল নতুন বছরকে।কালের পরিক্রমায় পেরিয়ে গেল আরও একটা বছর। বিদায় ২০১৯।

প্ল্যানেটরিয়ামে দীর্ঘ লাইন।

বছরের শেষ দিনটা চুটিয়ে উপভোগ করলেন শহরবাসী। বেশির ভাগ স্কুল-কলেজ ছুটি। অফিস-কাছারিতেও পড়ে থাকা ছুটির হিসেব মিলিয়ে মঙ্গলবার অনেকেই ক্যাজুয়াল ছুটি উপভোগ করেছেন। তাই সকাল থেকেই কলকাতার দর্শনীয় স্থানগুলোতে ভিড় উপচে পড়েছে। চিড়িয়াখানা, ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, বিড়লা প্ল্যানেটরিয়াম, জাদুঘর, দক্ষিণেশ্বর কালীমন্দির, বেলুড় মঠ, সায়েন্স সিটি, ইকো পার্ক – কোথায় ভিড় ছিল না! তালিকা শেষ করা যাবে না।

২০১৯-এর শেষ সূর্য অস্তাচলে।

চলতি বছরের সূর্য বিদায় নিতেই যেন আগমনী বেজে উঠল নতুন বছরের। আর তো কয়েক ঘণ্টা। তার পরেই উদযাপন হবে নতুন বছরের আগমনের। এ দিন শহরে রাতের আলো জ্বলে উঠতেই মনে হল  চেনা শহরটাকে কেমন যেন অচেনা লাগছে।  

উলটোডাঙায় আলোকসজ্জা।

বড়োদিন আর নতুন বছর উপলক্ষ্যে শহর তো আগে থেকেই সেজে রয়েছে। এ দিন সাজ যেন আরও বেড়েছে। পার্ক স্ট্রিট তার ঐতিহ্য নিয়ে কয়েক দিন ধরেই আলোকমালায় সজ্জিত। নতুন করে চোখে পড়ার মতো আলোকসজ্জায় সেজে উঠেছে শহরের বহু অঞ্চল।

আলোকিত ৪২।

শহরের যে ভবনগুলো বিশেষ পরিচয় বহন করে সেগুলোকেও আলোয় সাজানো হয়েছে।

ইকো পার্কের আলোকিত সৌধ।

বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে ইকো পার্কে। ছুটির দিনে তুলনামূলক ভাবে নতুন গন্তব্য ইকো পার্ক। এখানকার সৌধগুলো দর্শকদের কাছে বিশেষ আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছে। সে সব সৌধগুলোকে বিশেষ আলোয় সাজানো হয়েছে।

প্রস্তুত উইনার্স।

আর বছরের শেষ রাতে যাতে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তা দেখার জন্য প্রস্তুত ছিল কলকাতা পুলিশ। কলকাতা পুলিশের বিশেষ নারীবাহিনী ‘উইনার্স’ সারা রাত টহল দিয়েছে শহরের রাস্তায়।

নতুন বছরে মানুষ অপেক্ষা করে থাকে কিছু নতুন বার্তার জন্য। সকলেরই প্রার্থনা, ২০২০ যেন সকলের জন্য সুখময় বার্তা নিয়ে আসে। ‘ক্যা’, ‘এনআরসি’-র ভয় যেন তাদের পিছুতাড়া না করে।

ছবি: রাজীব বসু

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.