সল্টলেকে গাড়ি আটকানোয় পুলিশের সঙ্গে ‘অভব্য’ আচরণ তরুণীর, সমালোচনার ঝড়

0

কলকাতা বন্ধুর সঙ্গে একটি ক্যাবে চড়ে পিকনিক গার্ডেন থেকে সল্টলেকে আসছিলেন এক তরুণী। পিএনবি মোড়ের কাছে পুলিশ কর্মীরা সেই গাড়িকে আটকাতেই রেগে অগ্নিশর্মা হয়ে ‘অভব্যতা’র চুড়ান্ত নমুনা পেশ করলেন ওই তরুণী।

করোনাভাইরাস সংক্রমণে লাগাম পরাতে গত মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে সারা দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। অপ্রয়োজনীয় কাছে যত্রতত্র ঘুরে বেড়ালে নেওয়া হচ্ছে আইনি ব্যবস্থা। এমন পরিস্থিতিতে কলকাতা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে চলছে কড়া পুলিশি টহলদারি। ঘটনায় প্রকাশ, এ দিন পিনএবির কাছে ওই ক্যাবটিকে থামিয়ে কোথায় যাচ্ছে, সেটাই জানতে চায় পুলিশ।

প্রথমত তরুণী জানান, তিনি ওষুধ কিনতে যাচ্ছেন। কিন্তু পুলিশ প্রেসক্রিপশন চাইলে তা তিনি দেখাতে পারেননি।

উল্টে তরুণী রীতিমতো পায়ে পা লাগিয়ে ঝগড়া শুরু করেন বলে অভিযোগ প্রত্যক্ষদর্শীদের। তিনি পুলিশকে গালিগালাজ তো বটেই দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। পুলিশকর্মীদের গায়ে হাত চালান বলেও অভিযোগ। এ ক্ষেত্রে গাড়িতে বসে থাকা তাঁর বন্ধু তরুণীকে থামতে বললেও তিনি সেই নিষেধ না শুনেই হুমকি দিতে শুরু করেন।

সংবাদ মাধ্যমের ভিডিয়োতে পুরো ঘটনা রেকর্ডিং হয়। তরুণী পুলিশের সঙ্গে যে ভাষায় কথা বলেন, তা শুনে তাজ্জব বনে যাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তিনি কর্তব্যরত পুলিশকর্মীকে বলেন, “হঠ্‌…তুই জানিস আমি কে”? তবে শুধু এখানেই শেষ নয়।

আচমকা গাড়ি থেকে নেমে আসেন তরুণী। সটান এক পুলিশকর্মীর উর্দিতে নিজের মুখ ঘষে দেন। তাঁর ঠোঁটের লিপস্টিক পুলিশকর্মীর উর্দিতে লেগে যায়। কেউ আবার বলছেন, মুখে থাকা পানের পিক ফেলেন তিনি। তবে অন্য একটি সূত্রে জানা যায়, তাঁর গালে ব্রণ ছিল। সেই ব্রণ ফেটে রক্ত লেগে যায় ওই পুলিশকর্মীর উর্দিতে। সঙ্গে সঙ্গে তরুণী বলেন, “যা তোকে করোনার ভাইরাস দিয়ে দিলাম”।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নতুন কয়েকটি পদক্ষেপ মুখ্যমন্ত্রীর

এর পরই ওই তরুণী, তাঁর বন্ধু এবং ক্যাবচালককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। তাঁদের সঙ্গে গাড়িটিকেও বাজেয়াপ্ত করা হয়। পুরো ঘটনায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব রুখতে যেখানে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে, তা পালন করতে পুলিশ পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নিচ্ছে, সেখানে পুলিশপ্রশাসনকে সহযোগিতা না করে এক জন নাগরিকের এহেন আচরণে বিস্মিত অনেকেই।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.