lawyer- killed

ওয়েবডেস্ক : নিউটাউনে আইনজীবী খুনের রহস্যে যবনিকা পতন। আইনজীবী স্বামী রজত দেকে খুনের কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করে নিলেন স্ত্রী অনিন্দিতা। সেই খুনে তিনি প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বলে জেরায় স্বীকার করেছেন। এরপরই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

শনিবার বিকেল পাঁচটা নাগাদ অনিন্দিতাকে নিউটাউন থানায় জেরার জন্য আনা হয়। তারপর চলে ম্যারাথন জেরা। স্বামীর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক কী রকম ছিল, ঘটনার সময় তিনি কোথায় ছিলেন, আরও একাধিক প্রশ্ন পুলিশ জিজ্ঞাসা করে। কিন্তু, অনিন্দিতার বয়ানে একাধিক অসঙ্গতি পাওয়া যায়। চলে আরও জেরা। এরপরই জেরার মুখে তিনি ভেঙে পড়েন, স্বীকার করে নেন মোবাইল চার্জারের তার জড়িয়ে তিনি রজতকে খুন করেছেন। তবে তাঁর এই বয়ান পুলিশের কাছে সস্পূর্ণ বিশ্বাসযোগ্য নয়।

অনিন্দিতা পাল দেকে গ্রেফতার করে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ

পুলিশ সূত্রে খবর, অনিন্দিতার পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে এই সন্দেহ থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঘটনার দিন বচসা শুরু হয়। রজত গলায় কাপড় জড়িয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। সেই সময় মোবাইল চার্জারের তার গলায় জড়িয়ে টেনে দেন অনিন্দিতা। এমনটাই জেরায় পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন তিনি। আনিন্দিতা পাল দে নিজেও একজন আইনজীবী।

আরও পড়ুন : নিউটাউনে আইনজীবীর রহস্য মৃত্যু, পুত্রবধূর বিরুদ্ধে অভিযোগ মৃতের বাবার

তদন্তে শুরু থেকেই বয়ানে অসঙ্গতি ছিল অনিন্দিতার। তাই পুলিশ তাঁর বক্তব্যকে পুরেপুরি মেনে নিতে নারাজ। এই খুনের ঘটনায় অন্যে কেউ জড়িত কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জেরায় স্বীকারক্তির সপর শনিবার রাত বারোটা নাগাদ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here