এক মাস আগেই ঘাটতি ছিল ৬০ শতাংশ, এখন কলকাতার বর্ষা ‘স্বাভাবিক’

0

কলকাতা: দুর্দান্ত ভাবে কলকাতায় ঘুরে দাঁড়িয়েছে বর্ষা। আর তার জেরে এই মরশুমে স্বাভাবিকের ঘরে ঢুকে গেল কলকাতার বৃষ্টিপাত। ফলে একমাস শহরের বৃষ্টি নিয়ে যে আতঙ্কের ছবিটা তৈরি হয়েছিল, সেটা এখন আর নেই।

এ বার শুরু থেকেই কলকাতায় বর্ষার পরিস্থিতি খুব খারাপ ছিল। দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলার পরিস্থিতিও যথেষ্ট খারাপই ছিল, কিন্তু কলকাতার পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠেছিল। জুলাইয়ের মাঝামাঝি শহরে বৃষ্টির ঘাটতি পৌঁছে গিয়েছিল ৭৩ শতাংশে। অর্থাৎ তত দিন পর্যন্ত বর্ষায় কলকাতায় যা বৃষ্টি হওয়ার কথা, আদতে হয়েছিল তার মাত্র ২৭ শতাংশ। এর পর কিছুটা বৃষ্টি বাড়ল শহরে। শেষে যখন জুলাই পেরিয়ে আগস্টে পা রাখল কলকাতা, তখন বৃষ্টির ঘাটতি রয়েছে ৬০ শতাংশে।

কিন্তু আগস্ট থেকেই যেন ছবিটা আমুল বদলে গেল। মাঝেমধ্যেই জোরদার বৃষ্টি পেতে শুরু করল শহর। এরই মধ্যে হাজির হল ১৬ আগস্ট। সে দিন বিকেলে মাত্র দেড় ঘণ্টায় কলকাতায় বৃষ্টি হল ৯৯ মিলিমিটার। পরের দিন দুপুর আড়াইটে পর্যন্ত তার আগের ২৪ ঘণ্টায় শহরে মোট বৃষ্টির পরিমাণ দাঁড়াল ১৯২ মিলিমিটার। ২৪ ঘণ্টায় প্রায় দু’শো মিলিমিটার বৃষ্টিই শহরের বৃষ্টিভাগ্যকে আমূল বদলে দিল।

কলকাতায় আগস্টে স্বাভাবিক বৃষ্টি হওয়ার কথা ৩৪০ মিলিমিটার। কিন্তু এ বার হয়েছে সাড়ে পাঁচশো মিলিমিটার। এমনকি আগস্টের বৃষ্টির নিরিখে মুম্বইকে হারিয়ে দিয়েছে কলকাতা। সেপ্টেম্বর পড়ার পরেও গত দু’ দিন বেশ বৃষ্টি হয়েছে শহরে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটা পর্যন্ত গত ৪৮ ঘণ্টায় শহরে বৃষ্টি হয়েছে ৬০ মিলিমিটার। আর এতেই এক লাফে স্বাভাবিকের ঘরে ঢুকে গিয়েছে বর্ষা।

আরও পড়ুন বাঁকুড়ায় ফের লোকালয়ে হাতির দল, আতঙ্ক

আবহাওয়ার পরিভাষায় স্বাভাবিকের ১৯ শতাংশ কম থেকে ১৯ শতাংশ বেশি পর্যন্ত বৃষ্টি হলে সেটাকে স্বাভাবিক হিসেবেই গণ্য করা হয়। সেই অনুযায়ী, এই মুহূর্তে কলকাতায় বৃষ্টির ঘাটতি এখন মাত্র ১৭ শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে। অর্থাৎ শহরের বর্ষা স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে।

শুধু কলকাতাই নয়, দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির মধ্যে উত্তর ২৪ পরগণা, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম এবং পুরুলিয়াতেও বর্ষা এখন স্বাভাবিক। এই সেপ্টেম্বর জুড়ে ব্যাপক বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে। ফলে মাসের শেষে দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাই হয়তো স্বাভাবিক বৃষ্টির পর্যায়ে পৌঁছে যেতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here