Connect with us

কলকাতা

করোনার পাশাপাশি কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শুরু হচ্ছে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা

তবে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ফের অন্যান্য রোগীর চিকিৎসাও এ বার শুরু হচ্ছে।

কলকাতা: করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় ‘কোভিড হাসপাতাল’ (Covid Hospital) হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজকে (Kolkata Medical Collage)। তবে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ফের অন্যান্য রোগীর চিকিৎসাও এ বার শুরু হচ্ছে।

শুধুমাত্র করোনার (Coronavirus) চিকিৎসা হওয়ায় তাঁদের প্রশিক্ষণ অসম্পূর্ণ থেকে যেতে পারে বলে অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নেমেছিলেন হাসপাতালের ইন্টার্ন এবং পিজিটিরা। নন-কোভিড রোগীদের পরিষেবা শুরুর দাবিতে আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে শিক্ষক-চিকিৎসকদের একাংশ প্রশ্ন তুলেছিলেন, পঠনপাঠনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে কেন পুরো হাসপাতালে শুধুমাত্র কোভিডের চিকিৎসা হবে?

গত বুধবার হাসপাতালের অধ্যাপক এবং সিনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “বিশেষজ্ঞ কমিটি যে রিপোর্ট দিয়েছে, তা মেনে চলবেন কি না দেখুন। সিনিয়রেরা জুনিয়রদের দিয়ে কাজ করালেই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে”। একই সঙ্গে তিনি জুনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা মিটিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

অন্য দিকে মেডিক্যাল কলেজে রয়েছে একাধিক সুপার স্পেশালিটি বিভাগ। ‘কোভিড হাসপাতালে’র তকমা মিলে যাওয়ার পর অন্য রোগীরা দূর থেকে এসে ভোগান্তির শিকার হচ্ছিলেন। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি বিবেচনা করে দ্রুত সমস্যা সমাধানের সিদ্ধান্ত নিলেন কর্তৃপক্ষ।

জানা গিয়েছে, শীঘ্রই আউটডোর বিভাগ চালু হয়ে যাবে। পাশাপাশি অন্যান্য সমস্ত বিভাগেও রোগী ভরতি করা হবে।

এ দিন অধ্যক্ষের জারি নোটিফিকেশনে আন্দোলনকারী জুনিয়র চিকিৎসকদের দাবিকে মান্যতা দিয়েই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানা গিয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই এই ঘোষণাকে নিজেদের জয় বলে দাবি করেছেন আন্দোলনকারীরা।

কলকাতা

রাতভর প্রবল বৃষ্টিতে ভাসল কলকাতার একাংশ

বুধবার রাতে জোর বৃষ্টি নামে শহরের একাংশে। মূলত দক্ষিণ কলকাতা এবং সংলগ্ন অঞ্চলে ঘণ্টাখানেক প্রবল বৃষ্টি হয়।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিম্নচাপের টানে বুধবার রাতে প্রবল বৃষ্টি, আর সেই বৃষ্টির জেরে জলমগ্ন হয়ে পড়ল কলকাতার একাংশ। তবে নিম্নচাপটি দূরে চলে যাওয়ায় বৃষ্টির দাপট কমতে পারে বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে।

বঙ্গোপসাগরের (Bay of Bengal) নিম্নচাপটির কারণে সোমবার রাত থেকে দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে। তবে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টি হলেও, কলকাতার বৃষ্টির তীব্রতা ছিল তুলনামূলক ভাবে কম।

তবে বুধবার রাতে জোর বৃষ্টি নামে শহরের একাংশে। মূলত দক্ষিণ কলকাতা এবং সংলগ্ন অঞ্চলে ঘণ্টাখানেক প্রবল বৃষ্টি হয়। প্রবল বৃষ্টি হয় দক্ষিণ ২৪ পরগণাতেও। এই বৃষ্টির জেরে জল জমে গিয়েছে কলকাতার পাটুলি, গড়িয়া, নাকতলা প্রভৃতি অঞ্চলে।

তবে শহরের অন্যান্য অংশে বৃষ্টির দাপট অনেকটাই কম ছিল, যেটা বোঝা যাচ্ছে পরিসংখ্যানে। গোটা রাত যখন বৃষ্টিতে ভাসছে দক্ষিণ কলকাতা তখন আলিপুরে বৃষ্টি হয়েছে মাত্র ২৫ মিলিমিটার। দমদমে কার্যত কোনো বৃষ্টিই হয়নি।

নিম্নচাপটি দূরে সরে যেতে শুরু করায় বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকেই উন্নতি শুরু হবে আবহাওয়ার। এ দিন সকালেও অবশ্য কয়েক পশলা বিক্ষিপ্ত মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

শুক্রবার থেকে আবার প্যাচপ্যাচে অস্বস্তিকর গরম পড়তে পারে কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে। যদিও ওই গরম খুব দীর্ঘায়িত হবে না। কারণ, ইতিমধ্যেই নতুন করে হুংকার দিতে শুরু করেছে বঙ্গোপসাগর। সামনের সপ্তাহের গোড়াতেই আসছে নতুন নিম্নচাপ।

Continue Reading

কলকাতা

রেহা চক্রবর্তীকে ঘিরে বাঙালি মেয়েদের হেনস্থা সোশ্যাল মিডিয়ায়, তদন্তে কলকাতা পুলিশ

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত কয়েক দিন ধরেই বাঙালি মেয়েদের উদ্দেশে কদর্য ভাষায় আক্রমণ করা হচ্ছে। সুশান্ত সিংহ রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) প্রাক্তন প্রেমিকা অভিনেত্রী রেহা চক্রবর্তীর (Rhea Chakraborty) তুলনা টেনে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমাগত কুরুচিকর আক্রমণ করা হচ্ছে বাঙালি মেয়েদের। এই ঘটনার তদন্তে নামল কলকাতা পুলিশ।

সুশান্তের মৃত্যর সঙ্গে নাম জড়িয়েছে রেহার। তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা। যদিও এখনও সুশান্তের মৃত্যুতে রেহার আদৌ কোনো ভূমিকা রয়েছে কি না সে ব্যাপারে কোনো কিছুই প্রমাণিত হয়নি।

কিন্তু ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একাংশের তীব্র কুরুচিকর আক্রমণের মুখে বাঙালি মেয়েরা। তাঁদের উদ্দেশে ব্যবহার করা হয়ে চলেছে আপত্তিকর নানা শব্দ। বাঙালি মেয়েরা ‘কালো জাদু’ জানে, তারা ‘বড়ো মাছ’ ধরতে ভালোবাসে, এমন মন্তব্য করা হচ্ছে।

দুঃখজনক ব্যাপার হল অবাঙালি মহিলারাও এই কদর্য খেলায় শামিল হয়েছেন। এ সব দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে প্রতিবাদ। লেখিকা সঙ্গীতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিবাদ করেছেন। প্রতিবাদ করেছেন সাধারণ মানুষও।

পাশাপাশি প্রতিবাদের তীব্র স্বর শোনা গিয়েছে অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরত জাহান এবং সুশান্তের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’য় সুশান্তের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করা স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের কাছ থেকেও।

অনেকেই এই অশালীন আক্রমণের প্রতিবাদে রাজ্য মহিলা কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেন। তার পরই রাজ্য মহিলা কমিশনের তরফে কলকাতা পুলিশের সাইবার সেলে অভিযোগ জানানো হয়। গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জয়েন্ট সিপি ক্রাইম মূরলীধর শর্মা।

এই প্রসঙ্গে শর্মা বলেন, “আমরা এখন অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখছি এবং তথ্য সংগ্রহ করছি।”

এই মর্মে প্রথম অভিযোগ করেছিলেন চন্দ্রাণী চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “জার্মানিতে আমার এক বন্ধু রয়েছে যাঁর পদবীও চক্রবর্তী। তাঁকে রেহা চক্রবর্তীর ভাই ভেবে কয়েক জন সোশ্যাল মিডিয়াতেই তাঁকে তীব্র আক্রমণ করতে শুরু করে। আমি এর প্রতিবাদ শুরু করতেই আমিও এর আক্রমণের শিকার হই। বাধ্য হয়ে পুলিশে অভিযোগ করতে হয়েছে।”

Continue Reading

কলকাতা

মিনিটখানেক আগে পৌঁছোনো সম্ভব হলেই মিলত জীবন্ত ইলিশের ভিডিও

‘খবর অনলাইন’-এর অগুনতি পাঠকের জন্য ভিডিওয় জীবন্ত ইলিশকে ধরে রাখতে ঢাকা থেকে রবিবার রাতের লঞ্চে বরিশাল হয়ে বরগুনা ছুটে আসা।

ঋদি হক: বরগুনা (বাংলাদেশ)

ট্রলার নিয়ে মাঝ নদীতে ছুটে গিয়েও জীবন্ত ইলিশের ছবিটি নেওয়া গেল না। তার আগেই কয়েক বার দাপাদাপি করেই নিস্তেজ হয়ে যায় সোয়া কিলো ওজনের ইলিশ মাছটি (Hilsa)। ‘খবর অনলাইন’-এর অগুনতি পাঠকের জন্য ভিডিওয় জীবন্ত ইলিশকে ধরে রাখতে ঢাকা থেকে রবিবার রাতের লঞ্চে বরিশাল হয়ে বরগুনা (Barguna) ছুটে আসা। এটি একটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র। পাশাপাশি বিষখালি নদীতে বহু ছোটো আকারের নৌকায় চেপে ইলিশ  শিকারে ব্যস্ত সময় কাটান মৎস্যজীবীরা।

সকাল ন’টা নাগাদ বরগুনা পৌঁছে ‘গণমুক্তি’ পত্রিকার স্থানীয় সাংবাদিক পারভেজ দুলালকে সঙ্গে নিয়ে ট্রলারযোগে বিষখালি নদীতে (Bishkhali River) ছুটে যাই। সেখানে ইলিশ মাছ শিকার করছিলেন আবদুল জলিল। তাঁর জালে ধরা পড়ে সোয়া এক কিলো ওজনের ইলিশ মাছটি। ছোটো ইলিশও রয়েছে বেশ কিছু। ইলিশ মাছটি জাল থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে হাসিমাখা মুখে জানালেন, মরশুম শুরু হলেও এখন এই নদীতে ইলিশ কম মিলছে। বৃষ্টি হলে মিলবে মাছ।

বাংলাদেশে (Bangladesh) বন্যার পাশাপাশি প্রচণ্ড খরতাপ চলছে। গরমের তোয়াক্কা না করে ইলিশের খবর সংগ্রহ করতে বরগুনা ছুটে আসা। কিন্তু নিষেধাজ্ঞার পর মৎস্যজীবীরা সাগরে মাছ শিকারে গিয়েছেন। তাঁরা ফিরে আসবেন সামনের সপ্তাহে। যা-ও বা কিছু ট্রলার ফিরে এসেছে, মন খুশি করার মতো ইলিশ মেলেনি। কয়েক টন করে মাছ পাওয়া গেছে। আর কিছু দিন পর বাজার ভরতি থাকবে ইলিশ মাছে। দামও কমবে।

বঙ্গোপসাগরে ১৩ দিন কাটিয়ে একাধিক  ট্রলার ফিরেছে। এমনই একজন মৎস্যজীবী শাহজাহান। তিনি জানালেন, ইলিশ-সহ তিন টন মাছ পেয়েছেন। ট্রলারে মাছ সংরক্ষণের মুখ খুলে দেওয়ার পর ভেতরে দেখা গেল মাছে ঠাসা।

বরগুনা জেলা জাতীয় মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি আবদুল খালেক।

বরগুনা জেলা জাতীয় মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি আবদুল খালেক ‘খবর অনলাইন’কে বলেন, তাঁদের সমিতিভুক্ত পাঁচ শতাধিক মৎস্যজীবী রয়েছেন। তা ছাড়া এই কাজে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে জড়িয়ে রয়েছেন আরও কয়েক লাখ মানুষ। 

আবদুল খালেক জানান, সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া মৎস্যজীবীদের প্রতিকূল আবহাওয়ার খবর জানানোর বিষয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বরগুনা সদরে মেরিন ফিশারিজ একটি কমপ্লেক্স নির্মাণ করেছে। সেখানে বসানো হয়েছে আধুনিক দূরনিয়ন্ত্রণ সরঞ্জাম। সাগরে মাছ ধরতে যাওয়া মৎস্যজীবীদের ওয়াকিটকি ব্যবহারে প্রশিক্ষণ দেওয়ার পাশাপাশি, লাইফ জ্যাকেট পরা ও অন্যান্য বিষয়ে প্রশিক্ষণ সমাপ্ত করা হয়েছে।

আবদুল খালেক আরও জানান, সাগরে ৬৫ দিন মাছ ধরা বন্ধ থাকাকালীন সরকারের সাহায্য এবং জাটকা নিধন বন্ধ থাকার সময়ে মাথাপিছু মাসিক ৪৫ কেজি করে চাল দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে হাসিনা সরকার। এর ফলে বাংলাদেশে ইলিশের উৎপাদন প্রতি বছর বাড়ছে।

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য27 mins ago

প্রয়াত বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী

দেশ2 hours ago

করোনা কাঁটায় ঝিমিয়ে অর্থনীতি, রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

Hrithik Roshan
বিনোদন3 hours ago

‘ক্রিশ ৪’ নয়, তার আগেই একটি কমেডি ছবিতে হৃতিক রোশনকে দেখা যাবে?

দেশ4 hours ago

কাশ্মীরে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত সরপঞ্চ তথা বিজেপি নেতা

বিদেশ5 hours ago

‘ভাসমান বোমার’ হুমকিকে উপেক্ষা, ক্ষোভে ফুঁসছে বেইরুট

দেশ5 hours ago

২০২৩-২৪ সালে অযোধ্যায় দিনে এক লক্ষ পুণ্যার্থীর প্রত্যাশা করছে কেন্দ্র-রাজ্য

অনুষ্ঠান5 hours ago

বাইশে শ্রাবণ উপলক্ষ্যে বাগুইআটি নৃত্যাঙ্গনের নিবেদন ‘ভুবনজোড়া আসনখানি’, দেখা যাবে অনলাইনে

দেশ6 hours ago

প্রথম পর্যায়ে আশাব্যাঞ্জক ফল, আজ থেকে কোভিড-টিকার দ্বিতীয় পর্যায়ের পরীক্ষা শুরু করছে ভারতীয় সংস্থা জাইডাস

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা15 hours ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা6 days ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা4 weeks ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

নজরে

Click To Expand