উম্পুনের এক সপ্তাহ পরেই কালবৈশাখীর তাণ্ডব কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে, আরও বৃষ্টির সম্ভাবনা

0
thunderstorm in kolkata

খবর অনলাইনডেস্ক: আগের বুধবারই পশ্চিমবঙ্গে হানা দিয়েছিল ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় উম্পুন (Cyclone Amphan)। তার ঠিক এক সপ্তাহ পরে এ বার কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে হানা দিল কালবৈশাখী। উম্পুনের তুলনায় অনেক কম গতিবেগ থাকলেও, এই ঝড়ের সময়েও সাধারণ মানুষের মধ্যে তীব্র আতঙ্ক দেখা দেয়।

আতঙ্ক তৈরি হওয়ার যথেষ্ট কারণও রয়েছে অবশ্য। একেই তো গত বুধবারের প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের স্মৃতি এখনও দগদগে। তার পর সংবাদমাধ্যমের একাংশ যে ভাবে পরবর্তী ঘূর্ণিঝড় ‘নিসর্গ’ নিয়ে প্রচার করেছে, তাতে তুমুল গুজব ছড়িয়েছে মানুষের মধ্যে। যার ফলে বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় ও পরিচিত কালবৈশাখীও (Norwester) এখন ভিলেন হয়ে উঠেছে।

Loading videos...

বুধবার দুপুরের পর থেকেই ছোটোনাগপুর মালভূমি অঞ্চলে কালবৈশাখীর মেঘ তৈরি হচ্ছিল। সেই বজ্রগর্ভ মেঘ ধীরে ধীরে এলাকা বিস্তার করে এবং পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলি দিয়ে রাজ্যে ঢোকে। প্রথমে তাই পশ্চিমাঞ্চলের জেলা, অর্থাৎ বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম বর্ধমানে তুমুল ঝড়বৃষ্টি হয়।

সন্ধ্যা ৬:১৫ নাগাদ কলকাতায় হানা দেয় কালবৈশাখী। ঝড়ের দাপটে কলকাতার কিছু জায়গায় গাছ পড়ে যায়। ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের দাপটে অনেক গাছের শিকড় দুর্বল হয়ে গিয়েছে। ফলে গাছ পড়ে যাওয়াটা অস্বাভাবিক কিছুই নয়।

ঝড়ের সঙ্গেই প্রবল বৃষ্টি শুরু হয় কলকাতায়। প্রায় ঘণ্টাখানেক ঝড়বৃষ্টি চলতে থাকে শহরে। পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতেও তুমুল ঝড়বৃষ্টি হয়েছে। সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ ঝড়ের দাপট কিছুটা কমে আসে।

বৃহস্পতিবার থেকে কিন্তু ঝড়বৃষ্টির দাপট বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে। আগামী ৪-৫ দিন রোজই কালবৈশাখী পেতে পারে দক্ষিণবঙ্গ। বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টিরও সম্ভাবনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.