খোদ পুলিশ কর্তার বাড়িতেই মধুচক্রের আসর! পুলিশ পৌঁছানোর আগেই গায়েব অভিযুক্তরা

Sex Racket
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: ঘটনাস্থল গড়ফা থানার অন্তর্গত শ্রীপুর দ্বিতীয় লেন। বাড়ির মালিক শ্যামবাজার ট্রাফিক গার্ডের এক সার্জেন। সেই বাড়িতেই কয়েক দিন ধরে দেহ ব্যবসা চালানোর অভিযোগে হানা দিল পুলিশ। কিন্তু খবর পেয়ে পুলিশ পৌঁছানোর আগেই পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।

জানা গিয়েছে, পুলিশ কর্তার ওই বাড়ির নীচের তলায় ভাড়াটিয়া হিসাবে থাকতেন সোমা দাস নামে এক বিবাহবিচ্ছিন্না মহিলা। মাত্র মাচ পাঁচেক আগেই ওই বছর পঁয়াত্রিশের মহিলার বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রতিদিন রাতেই তাঁর ঘর থেকে ভেসে আসত হইহুল্লোড় এবং চিৎকারের আওয়াজ। ওই ঘরে যে আদতে কী ঘটে চলেছে, তা ক্রমশ পরিষ্কার হতে শুরু করে অচেনা মানুষের আনাগোনা বাড়তে থাকায়।

বেশ কয়েক দিন ধরেই প্রতিবেশীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন বলে খবরে প্রকাশ। তাঁরা এ ব্যাপারে বিশেষ কোনো প্রতিবাদও করতে পারছিলেন না। অগত্যা, হাতেনাতে ধরতে গত মঙ্গলবার রাতে চার যুবক ওই মহিলার ঘরে ঢুকতেই খবর পৌঁছে যায় থানায়। কিন্তু পুলিশ আসার আগেই অভিযুক্তরা পালিয়ে যায় বলে দাবি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: নদিয়ার শান্তিপুরে বিষমদ খেয়ে ১ মহিলা সহ ৫জনের মৃত্যু

কী ভাবে গড়ফার মতো জনবহুল এলাকায় এ ধরনের ঘটনা ঘটছিল, সে বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

1 Comment

  1. অর্থের জন্য মেরুদন্ড বিকোতে পারে এই বাংলার মানুষ , প্রশাসন দাবার বোড়ে! হায় বাঙ্গালী , তোরা নৈতিকতায় আজ কাঙ্গালী!

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.