কলকাতা: এ রকম ভাবে কারও মৃত্যু হতে পারে, সেটা কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছেন না কলকাতা বিমানবন্দরের কর্মীরা। উড়ানের আগে রুটিনমাফিক পরীক্ষা করতে গিয়ে আচমকা দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হল বেসরকারি বিমানসংস্থা স্পাইসজেটের এক কর্মীর। মঙ্গলবার রাত ২টো নাগাদ এই ঘটনাটি ঘটেছে।

মৃত বিমানকর্মীর নাম রোহিত বীরেন্দ্র পাণ্ডে। স্পাইসজেটের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কর্মী ছিলেন তিনি। কয়েক মাস আগে বদলি হয়ে এসেছিলেন কলকাতায়। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে উড়ানের ঠিক আগে একটি বিমানের রুটিন পরীক্ষা চলছিল দমদম বিমানবন্দরে। বিমানের ঠিক নীচেই কাজ করছিলেন রোহিত। তখনই ঘটে বিপত্তি। আচমকাই বিমানের নীচের অংশ বা বেলির দরজাটি বন্ধ হয়ে যায়। রোহিতের মাথা-সহ শরীরের উপরের অংশটি দরজার ভিতরে আটকে যায়। ঘটনাটি যখন তাঁর সহকর্মীদের নজরে আসে, ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন কর্নাটক নাটকে চাঞ্চল্যকর মোড়, বিদ্রোহীদের দাবিকে মান্যতা পুলিশের!

কলকাতা বিমানবন্দর সূত্রে খবর, রোহিত একা নন, ঘটনার সময় তাঁর সহকর্মীরাও বিমান পরীক্ষার কাজ করছিল। যেখানে বিমান দাঁড়িয়েছিল, সেখানে যথেষ্ট আলোও ছিল। তা হলে কেন ঘটনাটি কারও নজরে পড়ল না?  এই প্রশ্ন ওঠায় একযোগে ঘটনার তদন্তে নেমেছে স্পাইসজেট ও কলকাতা বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন