সকালে যখন নামল বৃষ্টি। ছবি: রাজীব বসু।

খবর অনলাইন ডেস্ক: গোটা দক্ষিণবঙ্গ জুড়েই বৃষ্টি ব্যাপক ব্যাঘাত সৃষ্টি করল মহাষ্টমীর পুজোর। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় সকাল থেকে বৃষ্টি নামে। কোথাও কোথাও বৃষ্টির তোড় ছিল সাংঘাতিক বেশি। সন্ধের পর বৃষ্টির তোড় কমতেই মহানগর মেতে ওঠে।     

শাস্ত্রমতে এ দিন দুর্গাপূজার তৃতীয় দিন। সকাল থেকেই সর্বজনীন পূজামণ্ডপে এবং গৃহস্থবাড়িতে ব্যস্ততা তুঙ্গে ওঠে। এর ওপর বিকেলে ছিল সন্ধিপুজো। সেই সন্ধিপুজোর সময়েও কোনো কোনো জায়গায় ব্যাপক বৃষ্টি নামে।

তবে সেই বৃষ্টি উপেক্ষা করে মানুষ দিনভর ঠাকুর দেখার চেষ্টা করেছেন। বৃষ্টি নামতেই কোথাও ছুটে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। আর থামতেই ঠাকুর দেখার লাইনে দাঁড়িয়ে গিয়েছেন।   

তখনও বৃষ্টি নামেনি। ঠাকুর দেখার লাইন, মহম্মদ আলি পার্কে। ছবি:রাজীব বসু।

তবে সন্ধের দিকে বৃষ্টির তোড় কিছুটা কমে। প্রায় সর্বত্র ইলশেগুঁড়ির মতো বৃষ্টি পড়তে থাকে। ততক্ষণে সন্ধিপুজোও শেষ হয়েছে। ফলে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি মাথায় নিয়েই দর্শনার্থীরা দলে দলে বেরিয়ে পড়েন ঠাকুর দেখতে। ফলে সন্ধের পর পূজামণ্ডপগুলিতে দর্শনার্থীদের ভিড় আগের দু’ দিনের মতোই ছিল।

বাঙালির কাছে অষ্টমীপুজোর গুরুত্ব অন্য জায়গায়। পুজোর বাকি দিনগুলোতে মাকে অঞ্জলি দেওয়া হোক বা না-ই হোক, অষ্টমীতে দেওয়া চাই-ই। সকাল থেকে তারই আয়োজন। অন্তত আজকের দিনটিতে বাঙালি অন্য রকমের পোশাক ছেড়ে ট্রাডিশনাল পোশাক পরে অঞ্জলি দেয়। মেয়েরা শাড়ি, আর ছেলেরা পাঞ্জাবি-ধুতি বা পাঞ্জাবি-পাজামা।

মহাষ্টমীর পুষ্পাঞ্জলি। ছবি: রাজীব বসু

এ বছর সেই ট্রাডিশনে কিছুটা বাধা সৃষ্টি করল বৃষ্টি। ইচ্ছে থাকলেও মেয়েরা শাড়ি আর ছেলেরা ধুতি-পাঞ্জাবিতে নিজেদের সাজাতে কিছুটা ইতস্তত বোধ করেছেন। সাহস করে যাঁরা পরেছেন তাঁরা সেই পোশাক সামলাতে বেশ বেগ পেয়েছেন।   

অষ্টমীর দিন অনেক বাড়িতে নিরামিষ ভোজনও একটা প্রথা হিসাবে দাঁড়িয়ে গিয়েছে। এ দিন নিরামিষ ভোজন করার পর নবমীতে কবজি ডুবিয়ে মাংস ভক্ষণ। তবে বহু বাড়িতে অষ্টমীর দিন ইলিশ মাছ খাওয়ারও রেওয়াজ আছে।

দাঁবাড়ির পুজো। ছবি: রাজীব বসু।

বনেদিবাড়ির পুজোগুলোতেও এ দিন ব্যস্ততা ছিল তুঙ্গে। কোনো কোনো বনেদিবাড়িতে কুমারীপূজা অনুষ্ঠিত হয়। অষ্টমীপূজা সাঙ্গ হওয়ার পরেই কুমারীপূজায় বসতে হয়। এর ওপর এ দিন বিকেলেই ছিল সন্ধিপুজো। সেই পুজোর স্থায়িত্ব মাত্র ৪৮ মিনিট। ওইটুকু সময়ের মধ্যে সমস্ত উপাচার সম্পূর্ণ করতে হয়। এ ছাড়াও থাকে নানা রকম পারিবারিক প্রথা। সব কিছু মিলিয়ে এ দিনটা বেশ জমজমাট ভাবেই কাটে বনেদিবাড়িতে।

আরও পড়তে পারেন          

মহাষ্টমীর সকালে কুমারীপুজো সম্পন্ন হল বেলুড় মঠে

বুক স্টল ভাঙচুরের প্রতিবাদ সভা, অষ্টমীর সন্ধ্যায় গ্রেফতার বিকাশ, কমলেশ্বর-সহ একাধিক বাম নেতা

গান্ধীজির আদলে মহিষাসুর! বিতর্কের জেরে রাতারাতি পাল্টে গেল চেহারা

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন