নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে পথে নামলেন নাট্যকর্মীরা

0

কলকাতা: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ)-র বিরুদ্ধে পথে নামলেন পশ্চিমবঙ্গের নাট্যকর্মীরা। শুক্রবার রাসবিহারী থেকে শুরু করে মিছিল এগিয়ে চলে আকাদেমির দিকে।

এ দিনের প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নেন বিভাস চক্রবর্তী, পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, মেঘনাদ ভট্টাচার্য, চন্দন সেন, সুজন বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ বিশিষ্ট নাট্য ব্যক্তিত্বরা। মিছিলে পা মেলান কয়েক হাজার নাট্যকর্মী। সিএএ-র বিরোধিতার পাশাপাশি দেশের ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রেখে বেকারের হাতে কাজ, সমাজ এবং শিক্ষাঙ্গনে শান্তি ফিরিয়ে আনা, অর্থনৈতিক সংস্কারের দাবিও জানান তাঁরা।

মিছিল থেকে সমাজ এবং শিক্ষাঙ্গনগুলিতে স্বাধীনতা, সহিষ্ণুতা এবং মুক্তচিন্তার পাশাপাশি শান্তির পরিবেশ ফিরিয়ে নিয়ে আসার দাবি জানান প্রতিবাদকারীরা। দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজ্যের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে যে ভাবে পড়ুয়াদের উপর নৃশংস আক্রমণ চলছে, তার বিরুদ্ধেও স্লোগান ওঠে। একই সঙ্গে শিল্পী এবং বুদ্ধিজীবীদের উপর শাসকদলের নির্যাতনের বিরুদ্ধেও সরব হয় এ দিনের মিছিল।

দেশের গণতন্ত্রকে বিপন্ন করে তুলে সরকারের ছাত্র পেটানোর রাজনীতির জোরালো বিরোধিতার করেন প্রতিবাদকারীরা। নাট্যকার চন্দন সেন বলেন, “সরকার যখন বেকারের হাতে কাজ দিতে পারছে না, তখন নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার ভয় দেখিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে চাইছে। তবে এই পরিস্থিতি আর বেশি দিন স্থায়ী হবে না। মানুষ রাস্তায় নামছে, প্রয়োজনে তারা বিকল্প পথও ধরবে”।

তবে নাট্যকর্মীদের এই প্রতিবাদ মিছিলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি নিজের প্রতিক্রিয়ায় জানান, “ওই মিছিলে হাওয়া মোরগেরা হাঁটছেন। তাঁরা আগে ঠিক করুন কোন দিকে থাকবেন। তবে আর যাই করুন, দেশের বিরুদ্ধে না গেলেই ভালো”।

যদিও নাট্যকর্মীদের প্রতিবাদ মিছিলে কোনো দলীয় পতাকা চোখে পড়েনি। মিছিলে অংশ নেওয়া কয়েক হাজার নাট্যকর্মীর হাতে ছিল পোস্টার এবং জাতীয় পতাকা।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.