thunderstorm in kolkata

খবরঅনলাইন ডেস্ক: চলতি মরশুমে প্রথম বার পুরোদমে একটি কালবৈশাখী ঝড় হানা দিল কলকাতা শহরে। মাঝারি বৃষ্টি দিল সে। আবহাওয়া ঠান্ডাও করল। কিন্তু মধ্যে এবং উত্তর কলকাতাতেই তার দাপট বেশি ছিল। দক্ষিণ শহরতলিতে মন ভরাতে পারেনি সে।

বুধবার রাতে এই ঝড়ের কারণে যখন কলকাতার অধিকাংশ এলাকার মানুষ হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন, তখন যাদবপুর, গড়িয়া, পাটুলির বাসিন্দারা হাপিত্যেশ করেছেন। একটু ঠান্ডা হাওয়া এবং মেঘের গর্জন ছাড়া বেশি কিছুই জোটেনি তাঁদের জন্য। অবশ্য বৃহস্পতিবারও ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

Loading videos...

ঝাড়খণ্ডে তৈরি হওয়া বজ্রগর্ভ মেঘপুঞ্জ রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ, মালদায় ব্যাপক ঝড়বৃষ্টি নামিয়ে বুধবার রাত ১০টা নাগাদ পৌঁছে যায় কলকাতায়। সারা দিন প্রবল গরমে হাপিত্যেশ করা কলকাতাবাসীর মনে তখন কিছুটা শান্তি আসতে শুরু করে। প্রথম দমকা হাওয়া দিয়ে শুরু, তার পর নামে স্বস্তির বৃষ্টি।

আলিপুরের রেকর্ডই জানিয়ে দিচ্ছে যে মোটামুটি ভালোই বৃষ্টি পেয়েছে কলকাতা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় এখানে বৃষ্টি হয়েছে ১২ মিলিমিটার। তবে বুধবারের ঝড়বৃষ্টির ব্যাপক প্রভাব পড়েছিল বাঁকুড়ায়। সেখানে বৃষ্টি হয়েছে ৪০ মিলিমিটারেরও বেশি। এপ্রিলে মাত্র কয়েক ঘণ্টায় ৪০ মিলিমিটার বৃষ্টি হওয়া কম কথা নয়।

এ ছাড়াও, দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সর্বত্র বৃষ্টি হয়েছে মোটামুটি ভালোই। বৃহস্পতিবারও সকাল থেকে দক্ষিণবঙ্গের আকাশ জুড়ে মেঘের আনাগোনা। অনেক জায়গায় ফের ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়েছে। দুপুরের দিকে কলকাতার ভাগ্য কিছু জোটে কী না, সেটাই দেখার।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণ থিতু হলেও কমার লক্ষ্মণ এখনও নেই, কড়াকড়ি আরও বাড়াল মহারাষ্ট্র

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.