কলকাতা: মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য রওনা দিতে যাওয়ার সময় শহর কলকাতায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট। অফিস টাইমে প্রায় ১৫ মিনিট ধরে মেট্রোয় বিদ্যুৎ বিভ্রাটের জেরে সুড়ঙ্গের মধ্যেই আটকে রইল একাধিক ট্রেন। যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়ে স্টেশনেও দেখা দেয় চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা।

বৃহস্পতিবার সকালে উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার বেশ কয়েকটি এলাকা সহ বিদ্যুৎ বিহীন হয়ে পড়ে মেট্রো। ৯টা ৫৩ মিনিট নাগাদ বন্ধ হয়ে হয়ে যায় পরিষেবা। সুড়ঙ্গের মধ্যেই আটকে পড়ে একাধিক ট্রেন। ট্রেনের মধ্যে থাকা যাত্রীরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। সেই সময় বেশ কয়েকটি ট্রেনের দরজা বন্ধ করা যায়নি বলেও অভিযোগ। দিনের ব্যস্ত সময়ে স্টেশনেও ছিল উপচে পড়া ভিড়। হঠাৎ বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় যাত্রীরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।  দেখা দেয় বিশৃঙ্খলা। ১০টা ৮ মিনিট নাগাদ ফের বিদ্যুৎ সংযোগ চালু হলে পরিবেষা স্বাভাবিক হয়। যাত্রীদের অভিযোগ প্রায় দশ মিনিট কোনো ঘোষণা করা হয় নি মেট্রোর পক্ষ থেকে। ওই সময় ট্রেনগুলিতে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরাও ছিল বলে জানা গিয়েছে। 

কেন বিদ্যুৎ বিভ্রাট?

সিইএসসি সূত্র খবর, বজবজ কেন্দ্রে ইউনিট বসে যাওয়ার ফলে উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার বিস্তীর্ণ অঞ্চল বিদ্যুতহীন হয়ে পড়ে। পরিস্থিত স্বাভাবিক করতে রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদের দ্বারস্থ হয় সিইএসসি।সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কলকাতায় ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রয়োজন। ইউনিট বসে যাওয়ায় ঘাটতি ৭০০ মোগাওয়াট। ঘাটতি মেটাতে পুরুলিয়া সাব স্টেশন এবং হলদিয়া ইউনিট থেকে বিদ্যুৎ আনা হয়। তবে নবান্ন সূত্রে খবর, রাজ্য সরকার এই ঘটনাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখছে। এ নিয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করছেন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে দুপুর দেড়টা নাগাদ একটি বৈঠকেরও ডাক দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here