নয়াদিল্লি: ৭ ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন। কেন্দ্রীয় সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী জানান, “শীতকালীন অধিবেশনের ২৩ দিনে ১৭টি বৈঠক হবে”।

মন্ত্রী জানান, অমৃত কাল অধিবেশন চলাকালীন আইনসভার কাজ এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য তাঁরা আশাবাদী। তবে বর্তমান কয়েক জন সদস্যদের মৃত্যুর পরিপ্রেক্ষিতে আসন্ন শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনের অধিবেশন স্থগিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়ম সিংহ যাদবও সম্প্রতি প্রয়াত সংসদ সদস্যদের তালিকায় রয়েছেন।

এ দিকে, কোভিড সংসক্রমণ উল্লেখযোগ্য ভাবে কমেছে এবং লোকসভা ও রাজ্যসভা সচিবালয়ের বেশিরভাগ সদস্য ও কর্মচারীকে সম্পূর্ণরূপে টিকা দেওয়া হয়েছে। তবে স্বাস্থ্যসুরক্ষার কথা বিবেচনা করে শীতকালীন অধিবেশনেও কিছু কোভিড বিধিনিষেধ থাকতে পারে।

উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখরের প্রথম অধিবেশন হতে চলেছে এ বারের শীতকালীন অধিবেশন। তিনি রাজ্যসভার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। চলতি বছরের ১১ আগস্ট উপরাষ্ট্রপতি পদে শপথ নিয়েছিলেন ধনখড়। তার পর থেকে এটাই প্রথম সংসদের কোনো অধিবেশন। আসন্ন অধিবেশন চলাকালীন পাস করা বিলগুলির একটি তালিকা প্রস্তুত করবে সরকার। অন্য দিকে বিরোধীরা জরুরি বিষয়ে আলোচনার দাবি করবে।

এর আগে, ১৮ জুলাই শুরু হওয়া বাদল অধিবেশন ৮ আগস্ট শেষ হয়েছিল। অধিবেশন চলাকালীন লোকসভায় মাত্র ছ’টি বিল পেশ করা হয়েছিল। আগের অধিবেশন চলাকালীন, লোকসভায় সাতটি বিল এবং রাজ্যসভায় পাঁচটি বিল পাস হয়েছিল, এবং একটি বিল প্রত্যাহার করা হয়েছিল। অধিবেশন চলাকালীন সংসদের উভয় কক্ষে পাস হওয়া বিলের সংখ্যা ছিল পাঁচটি। গত অধিবেশনে উভয় কক্ষে মূল্যস্ফীতি-সহ পাঁচটি বিষয়ে আলোচনা হয়।

কংগ্রেস সূত্রে খবর, সাংসদ রাহুল গান্ধী এ বারের শীতকালীন অধিবেশনে যোগ দিতে পারবেন না। দলের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ জানিয়েছেন, ভারত জোড়ো যাত্রার কারণে রাহুল গান্ধী এ বারের শীতকালীন অধিবেশনে যোগ দিতে পারবেন না। তাঁর ভারত জোড়া যাত্রার নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী ১৫০তম দিনে জম্মু ও কাশ্মীরে পৌঁছতে পারেন তিনি।

আরও পড়ুন: ফের হাওড়া স্টেশনে উদ্ধার লক্ষ লক্ষ টাকা, গ্রেফতার উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন