বৃষ্টি বিপর্যস্ত কেরলে মৃত কমপক্ষে ২১, উদ্ধারে নেমেছে সেনা

0

তিরুঅনন্তপুরম: এক নাগাড়ে ভারী বৃষ্টির জেরে বানভাসি পরিস্থিতি কেরলে। অতিবৃষ্টির ফলে ভূমিধস এবং সম্পর্কিত অন্যান্য কারণে এখনও পর্যন্ত ২১ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে প্রশাসন। নিখোঁজ অনেকেই। উদ্ধারে নেমেছে সেনা বাহিনী।

রবিবার সকালে কেরলের অধিকাংশ জেলায় বৃষ্টির তীব্রতা আগের থেকে অনেকটাই কমেছে। তবে গভীর রাত পর্যন্ত লাগাতার বৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় জল জমে গেলেও নতুন করে কোথাও বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এ দিন সকালে টুইটারে লেখেন, “কেরলের বেশ কিছু অংশে ভারী বৃষ্টিপাত এবং বন্যা পরিস্থিতির উপর আমরা নিরবচ্ছিন্ন ভাবে নজর রাখছি। কেন্দ্রীয় সরকার দুর্গতদের সাহায্য করার জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করবে। উদ্ধার অভিযানে সাহায্যের জন্য ইতিমধ্যেই এনডিআরএফ টিম পাঠানো হয়েছে”।

কেরলের ওয়েনাড়ের সাংসদ রাহুল গান্ধী টুইটারে লেখেন, “আমি কেরলের মানুষের পাশেই রয়েছি। দয়া করে নিরাপদ থাকুন এবং সমস্ত সুরক্ষা সতর্কতা অনুসরণ করুন”।

লাগাতার বৃষ্টির জেরে বহু এলাকায় ঘর বাড়ি জলমগ্ন। গবাদি পশু ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে নিরাপদ স্থানের খোঁজে মানুষ। সর্বভারতীয় স্তরের সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত ২১ জনের মৃত্যুর ঘটনা নিশ্চিত করেছে প্রশাসন। ইদুক্কিতে গাড়িতে যাওয়ার সময় ভেসে গিয়ে নিখোঁজ দুই। কোট্টায়াম জেলার কোট্টিক্কালে বৃষ্টিতে ধস নেমে মৃত্যু হয়েছে সাত জনের। কাঞ্জিরাপল্লিতে মৃত এক, থোডুপুজাতে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে।

কোট্টায়াম এবং ইদুক্কি জেলার একাধিক জায়গায় ভূমিধসের খবর পাওয়া গিয়েছে। কোট্টায়ামে ১২ জন নিখোঁজ। সেনা বাহিনী এবং বায়ুসেনার সদস্যরা উদ্ধারে নামলেও কোট্টায়ামের খারাপ আবহাওয়া উদ্ধার অভিযান বাধার সৃষ্টি করে।

আরও পড়ুন: প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত কেরল, নিখোঁজ অনেকেই, বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন