Uttar Pradesh Police

ওয়েবডেস্ক:  গত ৪৮ ঘণ্টায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ ১৮টি এনকাউন্টারের ঘটনা স্বীকার করে নিয়ে জানিয়েছে, এই গত বুধবার থেকে এই সময়ের মধ্যেই ২৫ জন চিহ্নিত অপরাধীকে গ্রেফতার এবং ২৫ হাজার টাকা মাথার দাম জারি করা এক দুষ্কৃতীকে হত্যা করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরনগরের গাজিয়াবাদের বাসিন্দা ইন্দ্রপালকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা রয়েছে।২০১৩ সালে উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে একটি বিস্ফোরণ কাণ্ডে জড়িত ছিল ইন্দ্রপাল। ওই ঘটনায় এক পুলিশ কর্মীও নিহত হন। ওই দিন ইন্দ্রপাল স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ) বাহিনীর উপর নির্বিচারে গুলি চালায়। এক পুলিশ কর্মীর মৃত্যু ছাড়া ওই বাহিনীর সাব-ইন্সপেক্টরও গুরুতর ভাবে আহত হন।

৩ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে (শনিবার, ২টো নাগাদ) পুলিশের সঙ্গে দুষ্কৃতীদের শেষ গুলির লড়াই শুরু হয় কন্নৌজে। ওই ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মী জখম হন। টানা বেশ কিছুক্ষণ গুলির লড়াই চলার পর বেশ কয়েক জন দুষ্কৃতী পালাতে সক্ষম হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার গোরখপুরে অন্য একটি সংঘর্ষে দুই অপরাধীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যাদের প্রত্যেকের জন্য মাথার দাম ঘোষণা করা হয়েছিল ৫০ হাজার টাকা। গত রবিবারই তারা ব্যবসায়ী দীনেশ গুপ্তা হত্যার দায় স্বীকার করে নিয়েছিল।

ঘনঘন এনকাউন্টারের ঘটনার জন্য সমালোচিত উত্তরপ্রদেশ পুলিশ জানিয়েছে, নিজেদের আত্মরক্ষার করতে গিয়েই তারা দুষ্কৃতীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে। রাজ্যের ডিজি ও পি সিং মন্তব্য করেছেন, ‘একের পর এক সংঘর্ষ ঘটার কারণ আমরা দুষ্কৃতীদের ধরতে চরম পদক্ষেপ নিয়েছে। যে কারণে তাদের গুলির সামনে পড়ে আমরাও আত্মরক্ষার তাগিদে গুলি চালাতে বাধ্য হচ্ছি।’

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here