রাজ্যসভায় বিক্ষোভ, নাটকীয়তার মধ্যেই পাশ হল দু’টি কৃষি বিল!

0
সংসদ। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: বিরোধীদের সম্মিলিত প্রতিবাদ, বিক্ষোভ এবং নাটকীয় ঘটনার মধ্যেই রবিবার রাজ্যসভায় পাশ হয়ে গেল দু’টি কৃষি বিল।

এ দিন সকালে কেন্দ্রীয় কৃষি এবং কৃষক কল্যাণমন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর রাজ্যসভায় বিল দু’টি পেশ করেন। একটি ‘কৃষিপণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং অন্যটি ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত বিল।

সকাল থেকেই বিরোধীদের প্রতিবাদে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল রাজ্যসভা। তবে বিরোধীদের বিক্ষোভের মধ্যেই ধ্বনি ভোটে জয় পেল বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ।

বিরোধী দল কংগ্রেস দাবি করে, “কৃষকদের মৃত্যুর পরোয়ানা”য় স্বাক্ষর করবে না। বিরোধী দলগুলি সম্মিলিত ভাবে বিলগুলিকে সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর দাবি জানায়। যদিও সেই দাবি আমল পায়নি।

তৃণমূল সাংসদ ডেকের ও’ব্রায়েন বলেন, “১৩-১৪টি বিরোধী দল প্রতিবাদ জানায়। তাদের কণ্ঠরোধ করতে যাবতীয় পদক্ষেপ নিয়েছে বিজেপি। ওরা সংসদের সব নিয়মকে হত্যা করছে। জঘন্যতম হিসেবে এটা রাজ্যসভার ঐতিহাসিক একটা দিন। দেশের মানুষ যাতে সেই ঘটনা দেখতে না পারেন, তাই রাজ্যসভা টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ওরা রাজ্যসভা টিভিকেও সেনসর করছে”।

বিরোধীরা ওয়েলে নেমে তুমুল বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। হট্টগোলের সৃষ্টি হয় রাজ্যসভায়। এর পরই বাধ্য হয়ে অধিবেশন ১০ মিনিটের জন্য মুলতুবি রাখা হয়। তার পর রাজ্যসভা ফের চালু হতেই কৃষিক্ষেত্রে সংস্কার সংক্রান্ত বিলগুলির উপর ধ্বনি ভোট নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, কৃষক এবং বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির প্রতিবাদের মধ্যেই লোকসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে ‘অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সংশোধনী’, ‘কৃষি পণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন’ এবং ‘কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত করতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি’ সংক্রান্ত তিনটি বিল।

বিলগুলি নিয়ে দেশের একাধিক রাজ্যের কৃষকেরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তাঁদের অভিযোগ, এই বিলকে হাতিয়ার করেই ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ছেঁটে ফেলা হবে। তবে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর তরফে সেই অভিযোগ নস্যাৎ করা হয়েছে।

বিলগুলি পাশ হওয়ার পর এ দিন প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “ভারতীয় কৃষিক্ষেত্রের ইতিহাসে এক চরম সন্ধিক্ষণ। এই বিল পাশের জন্য দেশের কৃষকদের অভিনন্দন। এই বিল কৃষিক্ষেত্রের ভোল আমূল বদলে দেবে। কোটি কোটি কৃষকের হাতে ক্ষমতা তুলে দেবে”।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন